West Bengal Rain: বেলা বাড়তেই তুমুল বৃষ্টি কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়
Rains (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ২০ অক্টোবর: সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ ছিল। বেলা বাড়তেই বৃষ্টি (Rain) শুরু হয়েছে কলকাতা (Kolkata) সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়। কালো জমাট মেঘ রয়েছে। তাই ভারী বৃষ্টি চলবে বলেই মনে করছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী কয়েক ঘণ্টায় কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হুগলি, পূর্ব বর্ধমান, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, মালদা, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে। কাল থেকে থেকে বৃষ্টি কমবে। টানা বৃষ্টির কারণে তাপমাত্রা আরও নামার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। দিনের বেলাতেও গায়ে চাদর জড়াতে হচ্ছে অনেক সময়। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে সামনের সপ্তাহ থেকেই শীতের আমেজ মিলবে।

অন্য দিকে, টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গ। দার্জিলিংয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন। জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার-সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি। ফুঁসছে তিস্তা, তোর্ষা, রায়ডাক, কালজানি, ডায়না। ইতিমধ্যেই টানা বৃষ্টির জেরে দার্জিলিঙে বিভিন্ন জায়গায় ধস (Landslides) নেমেছে। কালিম্পং এবং গ্যাংটকগামী ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের কোনও কোনও জায়গা তিস্তার জলে ভেসে গিয়েছে। এছাড়াও ট্রেকিং বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আবহাওয়ার উন্নতি হলেই ট্রেকিং রুট খোলা হবে বলে জানানো হয়েছে প্রশাসনের তরফে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি চলবে। দার্জিলিং ছাড়াও আলিপুরদুয়ার, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে বৃষ্টি কমতে পারে। আরও পড়ুন: Darjeeling Rain: টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত দার্জিলিং, একাধিক জায়গায় ধস নেমে রাস্তা বন্ধ, খাদে গাড়ি পড়ে মৃত ১

সোমবার রাত থেকে উত্তরবঙ্গের অনেক জায়গায় মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছে, যার ফলে এলাকায় বেশ কয়েকটি ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। হঠাৎ বৃষ্টির ফলে বেশ কয়েকটি এলেকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। পুজোর সময় দার্জিলিং যাওয়া অনেক পর্যটক আটকে পড়েছেন। পুজোর ছুটির সময় অনেকে ট্রেকিং করতে যান। খারাপ আবহাওয়ার কারণে এটি আপাতত বাতিল করা হয়েছে। রিম্বিক এবং সান্দাকান ট্রেক বন্ধ। তাগদা-তিনচুলি এবং কালিঝোরা-রংপো সংযোগকারী রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।