Jadavpur University : যাদবপুর বিশ্ববিদ্যাল থেকে বের হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে হেনস্থা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। (Photo Credit: IANS/Wikimedia Commons)

কলকাতা, ১৯ সেপ্টেম্বর: Union Minister Babul Supriyo heckled at Jadavpur University- সাংসদ-মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)-র হেনস্থার ঘটনায় রণক্ষেত্র যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর আটকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। পড়ুয়া-রা 'গো ব্যাক' স্লোগান তুলছেন বাবুলকে দেখে। বাবুলকে কার্যত আটক করে রাখা হয়েছে। বাবুলের হেনস্থার ঘটনায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর আসরে নেমেছেন। মুখ্য সচিবকে ফোন করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকেও তিনি ফোন করেন। মুখ্যসচিবকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার পর, রাজ্যপাল যাদবপুরে এসে পৌঁছোন। পরে বাবুল সুপ্রিয়কে উদ্ধার করে এনে নিজের গাড়িতে বসান,। যদিওে রাজ্যপালের গাড়ি ঘিরে নতুন করে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। রাজ্যপালের গাড়ির সামনে বসে পড়েছেন বিক্ষোভরত পড়ুয়ারা।

 

আজ ABVP-র নবীনবরণ অনুষ্ঠানে এসে যাদবপুরের পড়ুয়াদের একাংশের হাতে হেনস্থা হতে হয় বাবুলকে। যা নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাসকে কাঠগড়ায় তোলেন বাবুল। উপাচার্য উদ্দেশ্য করে বাবুল বলেন, '' আমায় যখন নিগ্রহ করা হচ্ছে তখন আপনি কোথায় ছিলেন? এতক্ষণ আপনি আসেননি কেন। আপনি দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন। আসলে আপনি চাইছিলেন এটা হোক।"

বাবুল সুপ্রিয় উপচার্য সুরঞ্জন দাসকে উদ্দেশ্য করে বারবার বলতে থাকেন, আপনি এতক্ষণ কোথায় ছিলেন? আমি যখন এলাম, তখন আপনি আসেননি কেন? উত্তেজিত বাবুলের সামনে হাতজোড় করে অনুরোধ করতেও দেখা যায় উপাচার্য সুরঞ্জন দাসকে। আরও পড়ুন-হলুদ গোলাপে বন্ধুত্বের বার্তার পর অমিত শাহকে NRC নিয়ে অভিযোগ মমতা ব্যানার্জি-র

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উদ্দেশ্যে ‘গো ব্যাক’ স্লোগানও দিতে শোনা যায়। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয় যে বাবুল সুপ্রিয় মাটিতে পড়ে যান। আজ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীনবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ABVP (Akhil Bharatiya Vidyarthi Parishad)। সেই অনুষ্ঠানেই সংগীত শিল্পী হিসেবে যোগ দিতে আসেন বাবুল সুপ্রিয়।

২৪ ঘণ্টার খবর অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পা দেওয়া মাত্রই উত্তেজনা ছড়ায়। বিরোধী গোষ্ঠীর একদল পড়ুয়া তাঁকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। তাঁর নিরাপত্তারক্ষীর বেষ্টনী ভেঙে তাঁর উপর কার্যত চড়াও হয় বিরোধী গোষ্ঠীর পড়ুয়ারা। ধাক্কা দিতে দিতে ৩ নম্বর গেটের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে থাকে পড়ুয়ার দল। ধাক্কাধাক্কিতে পড়ে যান বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর জামার কলার ছিঁড়ে যায়। লাল-কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে ছাত্ররা ৷ NRC ইশুতে প্ল্যাকার্ড দেখিয়ে প্রতিবাদ জানায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদ (TMCP) ৷ পরে গ্রিন জ়োনে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বাবুলকে ৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বস্তরের শীর্ষ আধিকারিকরা ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থানে পৌঁছেছেন ৷ বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন তাঁরা ৷