Train Cancelled In West Bengal: নাগরিকত্ব আইনের বিক্ষোভের জেরে বাতিল আপ- ডাউন নিউ জলপাইগুড়ি- হাওড়ার শতাব্দি এক্সপ্রেস, ভোগান্তিতে যাত্রীরা
ভারতীয় রেল/ প্রতীকী ছবি (Picture Credits: PTI)

কলকাতা, ১৬ ডিসেম্বর: নাগরিকত্ব সংশোধিত আইনকে (CAA) কেন্দ্র করে প্রতিবাদের আগুনে জ্বলছে সারা দেশ। দেশজুড়ে জায়গায় জায়গায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে। গোটা উত্তরপূর্বে (North East) জ্বলছে প্রতিবাদের আগুন। প্রতিবাদের আঁচ এসে পড়ছে দূরপাল্লার ট্রেনগুলিতে (Express Train)। যার জেরে আজ পূর্ব রেল শাখার জনসংযোগ আধিকারিক (Chief Public Relation Officer of Eastern Railway) থেকে নিউ জলপাইগুড়ি- হাওড়া (New Jalpaiguri- Howrah) এবং হাওড়া- নিউ জলপাইগুড়ির (Howrah- New Jalpaiguri) ট্রেন চলাচল বাতিল করার কথা জানানো হয়। উত্তরপূর্ব সীমান্তে কাটিহার বিভাগের রেলওয়েতে বিক্ষোভের পর বাতিল করা হয় ট্রেন দুটি। ১২০৪২ ডাউন নিউ জলপাইগুড়ি-হাওড়া শতাব্দী এক্সপ্রেস (Shatabdi Express) এবং ১২০৪১ হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি শতাব্দী এক্সপ্রেস বাতিল (Cancelled) করা হয়।

শনিবার দিন ভর বিক্ষোভের পর গতকাল সকাল হতেই বিক্ষোভ শুরু হয়। দফায় দফায় সড়ক ও রেল অবরোধ শুরু হয়। আনন্দবাজারের খবর অনুযায়ী, শনিবার দিনভর বিক্ষোভের পর রবিবারও সকালে তেতে ওঠে উত্তর ২৪ পরগনার (North 24 Pargana) খড়দা, আমডাঙা এবং দেগঙ্গা। আমডাঙায় ধানকল মোড় অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। সোনাডাঙা মোড়েও অবরোধ করা হয়। ৩৫ নম্বর জাতীয় সড়কে (National Highways) টায়ার জ্বালিয়ে, গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করলে যানজট সৃষ্টি হয়। টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করা হয় দেগঙ্গাতেও। ভ্যাবলায় ট্রেন অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। নলহাটি-আজিমগঞ্জ, আজিমগঞ্জ-নিউ ফরাক্কা এবং কৃষ্ণনগর-লালগোলা শাখায় এখনও ট্রেন পরিষেবা চালু হয়নি। হাওড়ায় কোনা এক্সপ্রেসওয়ের গরফা ব্রিজের কাছে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। সেখানে বেশ কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয়। আরও পড়ুন, জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০জন আটক ছাত্রকে ছাড়ল পুলিশ, একদিন পর রাজধানীতে স্বাভাবিক মেট্রো পরিষেবা

বিক্ষোভের কারণে বিভিন্ন বিভাগে রেল চলাচল বিঘ্নিত হয়। এতে সাধারণ মানুষ অসুবিধায় পড়েছে। এমনকি নিরাপত্তা সংক্রান্ত রেলের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি নষ্ট হওয়ার কারণে ট্রেন চলাচল সম্পূর্ণ স্বাভাবিক করা যাচ্ছে না। ফলে সাধারণ মনুষের কাছে রেল চলাচল স্বাভাবিক করার জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করার আবেদন করে রেল কর্তৃপক্ষ। গত দুদিন থেকে বিক্ষোভের জেরে পূর্ব রেলের বিভিন্ন শাখায় আটকে রয়েছে বহু লোকাল ও দূরপাল্লার ট্রেন।