Cyclone Yaas Update: জানুন জেলায় জেলায় কী চলছে, রাজ্যের ৯ লক্ষ মানুষকে সরানো হল অন্যত্র
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ২৫ মে: 'য়াস'-এর (Cyclone Yaas) প্রভাবে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে আসছে নানা ক্ষয়ক্ষতির খবর। আসুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক য়াসের প্রভাবে রাজ্যজুড়ে কী চলছে। 'য়াস' মোকাবিলায় আজ নবান্নেই রাত কাটাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। রাজ্যে মোট ৪ হাজার কন্ট্রোল রুম তৈরি করা হয়েছে বলে খবর। কলকাতায় গঙ্গার জলস্তর বাড়ার আশঙ্কা। ফলে কলকাতার বিভিন্ন এলাকার লকগেট বন্ধ করে দেওয়া হল। আরও পড়ুন: Cyclone Yaas: ঘূর্ণিঝড় য়াসের গর্জন, দিঘায় জোর কদমে উদ্ধার কাজ এনডিআরএফের

পশ্চিম মেদিনীপুরে (West Midnapur) লাল সতর্কতা (Red Alert) জারি করা হয়েছে। বেশ কিছু এলাকায় ত্রাণ শিবির চালু করা হয়েছে। নর্থ ব্য়ারাকপুর ও গারুলিয়া পুরসভার বিভিন্ন এলাকায় গঙ্গার ঘাটে ভাঙন। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে রূপ বদলাচ্ছে গঙ্গার। এদিকে, ইছামতী নদীর বাঁধ দিয়ে নোনা জল ঢুকল বসিরহাট, হাসনাবাদে। হিঙ্গলগঞ্জেও ঘটেছে একই ঘটনা। রাজ্যের প্রায় ৯ লক্ষ মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বাংলার দিকে ক্রমশ এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় (Cyclone) য়াস। এই মুহূর্তে দিঘা থেকে ৩৭০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে মারাত্মক ঘূর্ণিঝড়। য়াস স্থলভাগে আছেড়ে পড়ার আগেই তার প্রভাব শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্য জুড়ে।

ওড়িশার বালাসোরেই সম্ভবত য়াস (Yaas) আছড়ে পড়বে। তা সত্ত্বেও বাংলায় দুর্যোগের ইঙ্গিত এখনও কাটছে না। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী এলাকায়। পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণার উপকূলবর্তী এলাকায় পুলিশের তরফে প্রচারের কাজ শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়েছে বাঁধ মেরামতির কাজও। আম্ফানের মতো মানুষকে যাতে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দুর্যোগ পোহাতে না হয়, তার জন্য আগে থেকেই নেওয়া হচ্ছে সমস্ত ধরনের ব্যবস্থা।

এদিকে, ঘুর্ণিঝড় মোকাবিলায় নন্দীগ্রামে আসরে নামলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রামের বিভিন্ন এলাকার পরিদর্শন করলেন বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু। গত বছর আমফানে ক্ষয়ক্ষতির কথা মাথায় রেখে কলকাতা বিমানবন্দরে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে কর্তৃপক্ষ। ঘূর্ণিঝড় য়াসের প্রভাবে রাজ্য জুড়ে বৃষ্টি শুরু হয়ে গিয়েছে। বুধবার স্থলভাগে মারাত্মক ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার আগে, মঙ্গলবার রাত থেকে নবান্নে থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী। নবান্নে থেকেই পরিস্থিতির উপর নজর রাখবেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।