রাজ্যের সরকারী কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা নিয়ে যা রায় দিল আদালত
Image used for representational purpose | (Photo Credits: PTI)

কলকাতা, ২৭ জুলাই: রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের বড় জয়। মহার্ঘভাতা নিয়ে আদালতে রাজ্য সরকার বড় ধাক্কা খেল। আগামী তিন মাসের মধ্যে সরকারী কর্মচারীদের জন্য নির্দিষ্ট ডিএ-ফর্মুলা তৈরি করে ছ মাসের মধ্যে তা কার্যকর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রাজ্য সরকারকে মহার্ঘভাতা কার্যকরের নির্দেশকা দিয়েছে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (স্যাট)।

পাশাপাশি নির্দেশ নেওয়া হয়েছে, সরকারী কর্মচারীরা বছরে অন্তত দু'বার যাতে ডিএ পান তা গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করতে হবে। আর তার জন্য ফর্মুলা তৈরি করে তা রোপা বিধিতে উল্লেখ করতে হবে। মহার্ঘভাতা বকেয়া মেটানোর সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। আরও পড়ুন-প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য সুখবর, বেতন বৃদ্ধির নির্দেশিকা জারি করল নবান্ন

মহার্ঘভাতা নিয়ে সরকারী কর্মচারীদের দাবি-আন্দোলন দীর্ঘদিনের। দাবি ছিল, কেন্দ্রীয় হারে বছরের নির্দিষ্ট সময়ে ন্যায্য প্রাপ্য ডিএ দিতে হবে। কিন্তু কিছুতেই তাতে রাজি হচ্ছিল না রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারী কর্মীদের ইউনিয়ন-স্টেট গর্ভমেন্ট এমপ্লয়িজ-এই ইস্যুতে আদালতে যায়। শেষ অবধি এই মামলাতে জয় পেয়ে বড় দাবি মিটতে চলেছে রাজ্য সরকারী কর্মীরা। দীর্ঘদিন ধরে চলা সরকারী কর্মীদের মধ্যে বৈষম্য কাটাতে হস্তক্ষেপ করে বড় রায় দিল আদালত।

এক নজরে সেই রায়--

১) কেন্দ্রীয় সরকারের হারে রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের মহার্ঘভাতা দিতে হবে

২) মহার্ঘভাতা কী ভাবে করা হবে তা আগামী তিন মাসের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি জারি করতে হবে রাজ্য সরকারকে

৩) মহার্ঘভাতা বাবদ যাবতীয় বকেয়া মেটাতে হবে রাজ্যকে।

৪) বকেয়া মেটাতে হবে এক বছরের মধ্যে।

৫) তবে বকেয়া মেটানোর আগেই যদি বেতন কমিশনের রিপোর্ট জমা পড়ে এবং নতুন বেতন কাঠামো স্থির হয়, তা হলে সেই কাঠামো চালুর আগেই বকেয়া ডিএ দিতে দিতে হলে।