Coronavirus In West Bengal: রেড জোনে থাকছে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা, রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ১৬২
মমতা ব্যানার্জি (Photo Credits: Twitter)

কলকাতা, ১৭ এপ্রিল: রাজ্যে করোনা সংক্রমণ রুখতে পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার। রেড জোনে (Red Zone) থাকছে কলকাতা (Kolkata), হাওড়া (Howrah), উত্তর ২৪ পরগনা (North 24 Pargana)। রেড জোনে লকডাউন নিয়ন্ত্রণে থাকবে সশস্ত্র পুলিশ। আজ নবান্নে বৈঠকে একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (CM Mamata Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রীর সাফ নির্দেশ কোনও বাজারে ভিড় করা যাবে না৷ পাশাপাশি মাস্ক না পরলে কোনও বাজারে ঢুকতে দেওয়া হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি৷ প্রয়োজনে ভিড় নিয়ন্ত্রণে সশস্ত্র পুলিশ ব্যবহার করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী পরিসংখ্যান ঘোষণা করে জানান, রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে হয়েছে ১৬২ জন। নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ২২ জন। ৪ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মৃত্যু ১০ জনের।

ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে সমস্ত জেলাশাসক, পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রতিটি জেলা ধরে ধরে প্রশ্ন করেন জেলাশাসকদের। জেলাগুলিতে ভিড় নিয়ন্ত্রণে কী ব্যবস্থা ও পরিস্থিতি নিয়ে খোঁজ নেন মুখ্যমন্ত্রী। পরিস্থিতি সামলাতে প্রয়োজনে 'কড়া হতে' নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী এ দিন আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, "হাওড়ার কয়েকটি এলাকা রেড জোন, কলকাতা কয়েকটি ওয়ার্ডও রেড জোন। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে এবার গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হবে৷" উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ প্রশাসনকে বিশেষ নজর দিতে বলেছেন তিনি। ক্ষেভপ্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "ডেঙ্গিও উত্তর ২৪ পরগনা থেকে শুরু হয়৷ করোনার ক্ষেত্রেও তাই হচ্ছে৷" বৈঠকে ১৪ দিনের মধ্যে হাওড়া এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলাকে রেড থেকে অরেঞ্জ জোনে নিয়ে আসার নির্দেশ দেন প্রশাসনিক কর্তাদের। পাশাপাশি যে জেলাগুলি অরেঞ্জ জোনের আওতায় আছে, সেগুলিকে গ্রিন জোনে নিয়ে আসার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷ আরও পড়ুন: Apache Helicopter Makes Emergency Landing: পঞ্জাবের হোশিয়াারপুরে খেতে জরুরি অবতরণ করল বায়ুসেনার অ্যাপাচে হেলিকপ্টার

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বীরভূম, বর্ধমান, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়ার মতো কয়েকটি জেলায় এখনও কোনও করোনা আক্রান্তের খোঁজ মেলেনি৷ সেই জেলাগুলিতেও যাতেও সোশ্যাল ডিসটেন্সিংয়ের নিয়ম মানার ক্ষেত্রে কোনও শিথিলতা দেখানো না হয় সেই পরামর্শ দেন তিনি৷ অন্যান্য রাজ্যগুলির সঙ্গে থাকা সীমান্তে কড়া নজরদারি চালানোর জন্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ নিয়ম পালনে কাউকেই যাতে ছাড় না দেওয়া হয়, সেকথা মনে করিয়ে দেন তিনি৷