Mamata Banerjee at Nadia: 'কোথায় গেল উজ্জ্বলা যোজনা?': নরেন্দ্র মোদিকে তোপ মমতার
মমতা/ প্রতীকী ছবি (Photo Credits: Twitter)

কৃষ্ণনগর, ১৮ এপ্রিল: রাজ্য বিধানসভার ষষ্ঠ দফার নির্বাচনের আগে আজ নদিয়ার কৃষ্ণনগরে জনসভা করেন তৃণমূল (TMC) নেত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। নদিয়ার তেহট্টের জনসভায় তাঁর বক্তব্য, "এবারের নির্বাচন বাংলার মর্যাদা রক্ষার নির্বাচন। বাংলার ভাষা ও সংস্কৃতির রক্ষার নির্বাচন। দিল্লির নেতারা আসছে বহিরাগত গুণ্ডাদের নিয়ে। বহিরাগতরা আসছে, রাজ্যে করোনা ছাড়াচ্ছে।" তাঁর আরও দাবি, হাওড়ার এক বিজেপি প্রার্থী করোনা নিয়েই বাড়ি বাড়ি প্রচার করেছেন। নির্বাচন কমিশনকে কটাক্ষ করে বলেন, "আমি বাকি দফাগুলির ভোট এক দফায় করার দাবি জানিয়েছিলাম। কিন্তু কমিশন তা করেনি। বিজেপির কথা শুনে ভোটের দফা না কমিয়ে প্রচারের সময় কমিয়ে দিয়েছে। ভোটের দফা কমালে এভাবে করোনা ছড়াত না।"

কৃষ্ণনগরের সভায় তিনি বলেন, "আমরা ক্ষমতায় এলে বাড়ির মহিলাদের ৫০০ থেকে ১০০০ হাজার হাত খরচ বাবদ দেব। বিজেপি ধর্মের বিভাজন করে রাজনীতি করে। চাষি থেকে পড়ুয়াদের জন্য একাধিক প্রকল্প, সেল্ফ হেল্প গ্ৰুপ 'মাতৃবন্দনা' তৈরি করব। যাতে তাঁরা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারে। উদবাস্তুদের পাট্টা দেওয়া হবে বলে জানান। প্রত্যেককে স্বীকৃতি দেওয়া হবে। বাংলায় সবাই একসঙ্গে থাকবেন। বাংলায় বিজেপিকে এনআরসি, এনপিআর করতে দেব না", বলে জানান। গ্যাসের দাম নিয়ে বিজেপি সরকারের কটাক্ষ করেন তিনি। পাশাপাশি এও জানান, আর দিনসাতেক পর পায়ের প্লাস্টার কাটা হবে।

আরও পড়ুন, '২-রা মে'র পর সকল শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কাজ শুরু হবে': অমিত শাহ

আগামী ২২ এপ্রিল রাজ্যে ষষ্ঠ দফার নির্বাচন। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী নির্বাচনের ৭২ ঘণ্টা আগে বন্ধ করতে হবে প্রচার সভা। তাই হাতে সময় কম। শেষমুহূর্তে ভোটের প্রচার সেরে নিচ্ছে সব দলই। আজ কৃষ্ণনগরের সভার পর খড়দা বিধানসভায় সভা করবেন তিনি। এরপর দক্ষিণ ২৪ পরগনায় জনসভা করে উত্তরবঙ্গে পৌঁছবেন মুখ্যমন্ত্রী।