Central Team Advises Chief Secretary: সংক্রমণ রুখতে আরও কড়া হতে হবে রাজ্যকে, মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রীয় দলের
লকডাউন (Photo Credits: Getty Images)

কলকাতা, ২৫ এপ্রিল: রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আরও কড়া হল কেন্দ্র (Central Team)। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৫৪৩টি করোনা-পরীক্ষা হয়েছে। কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা থেকে নতুন আক্রান্ত। পূর্ব মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান থেকে নতুন করোনা আক্রান্ত। পশ্চিমবঙ্গে অন্য রোগের ক্ষেত্রে মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতেও কি অডিট কমিটি আছে? বাংলায় করোনা পরীক্ষা কেন এত কম? রিপিট টেস্ট ও ফার্স্ট টেস্টের সংখ্যা কত? এরকম প্রশ্ন তুলে রাজ্যের মুখ্য সচিবকেকে জোড়া চিঠি পাঠালো কলকাতায় আসা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল।

এই চিঠিতে রাজ্যের করোনা চিকিৎসার পরিকাঠামো নিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। অন্য চিঠিতে প্রশ্ন তোলা হয়েছে করোনায় মৃত্যু খতিয়ে দেখতে তৈরা হওয়া অডিট কমিটি নিয়ে।.কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের উত্তরবঙ্গ সফরে যান। এরপর রাজ্যের মুখ্যসচিবকে ফের চিঠি পাঠান কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা। উত্তরবঙ্গের কিছু জায়গায় ঘুরে তাঁদের অভিজ্ঞতা জানানোর পাশাপাশি লকডাউন আরও কড়াভাবে কার্যকর করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ওই চিঠিতে। আরও পড়ুন, রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮, নতুন করে আক্রান্ত ৫১

এদিকে গতকাল মুখ্যসচিব (Chief Secretary) রাজীব সিনহা (Rajeev Sinha) দাবি করছেন, কেন্দ্রীয় দলকে সবরকম সহযোগিতা করছি। আমরা একমাত্র মানুষের কাছে দায়বদ্ধ। মানুষ পরিষেবা পাচ্ছে কিনা, সেটাই আসল পরীক্ষা। কেন্দ্রের কাছে নামমাত্র টাকা পেয়েছে রাজ্য। করোনার জন্য আলাদা করে টাকা আসেনি। বকেয়া মেটালে আরও ভাল কাজ করতে পারব। রেশনে কেন্দ্রের যা দেওয়ার কথা তার ৪০% পাইনি। তিনি আরও জানিয়েছিলেন, রাজ্যে মৃত ৫৭ জনের শরীরে পাওয়া গেছে করোনা। করোনাতেই মৃত্যু ১৮ জনের, ৩৯ জনের মৃত্যু অন্য কারণে। নতুন করে হাসপাতাল থেকে কাউকে ছাড়া হয়নি। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩৮৫ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মুখ্যসচিব আরও জানান, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনার বেশি, ৮২ শতাংশ। এছড়া নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৫১ শতাংশই কলকাতার। মুখ্যসচিব আরও জানান, অডিট কমিটি মোট ৫৭টি ডেথ কেস অডিট করেছে। যার মধ্যে ১৮টি করোনায় মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে কমিটি। বাকি ৩৯টি মৃত্যুর ক্ষেত্রে উপসর্গ পাওয়া গেলেও মৃত্যুর কারণ করোনার উল্লেখ নেই।