কোচ সুরজিৎ গাঙ্গুলি-র হাতে হুগলির কিশোরী সাঁতারু-র যৌন হেনস্থার ঘটনায় কঠোর ব্যবস্থার আশ্বাস কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু-র
অভিযুক্ত কোচ সুরজিৎ গাঙ্গুলি। (Photo Credits: Twitter)

কলকাতা, ৫ সেপ্টেম্বর:  Bengal Teen Swimmer Face Allegedly Molestation: গোয়ায় কোচ সুরজিৎ গাঙ্গুলির কাছে বাঙলার এক প্রতিশ্রুতিমান কিশোরী সাঁতারুর যৌন হেনস্থার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করলেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু। এই ঘটনায় দোষীর বিরদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ক্রীড়ামন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন। গোয়াতে সাঁতারের উন্নত প্রশিক্ষণ নিতে গিয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার কথা জানায় হুগলী বছর পনেরোর এক কিশোরী সাঁতারু। ভিডিও তুলে সে কোচের শ্লীলতাহানির প্রমাণও দেয় (যদিও সেই ভিডিও-র সত্যতা যাচাই করা হয়নি।)

কোচ সুরজিৎ গাঙ্গুলি বেশ কয়েক মাস ধরে হুগলির কিশোরী এই সাঁতারুর যৌন হেনস্থা করছিলেন বলে অভিযোগ। কোচের যৌন হেনস্থার ভিডিয়ো তুলে তা প্রকাশ্যে আনে সেই তরুণী সাঁতারু। গোয়াতে সাঁতারের প্রশিক্ষণ নিতে গিয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার কথা জানিয়ে এই ভিডিওটি প্রমাণ হিসেবে আনেন হুগলির সেই তরুণী সাঁতারু। আরও পড়ুন-পাঞ্জাবে বাজি কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ

বছর পনেরোর সেই তরুণী সাঁতারুর শ্লীলতাহানি-র সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভাইরাল এই ভিডিওটি দেখলে গা শিউরে ওঠার মত অবস্থা হবে। কী করে একজন কোচ এমন বিকৃত আচরণ করতে পারেন তা নিয়ে ক্ষোভ সব মহলে। ভিডিওটি-তে দেখা যাচ্ছে চোট পরীক্ষার নাম করা কিশোরী সাঁতারুর শরীরের নানা অংশে হাত দিচ্ছে কোচ। মাস ছয়েক আগে সাঁতারের অ্যাডভান্স ট্রেনিংয়ের জন্য গোয়াতে গিয়েছিলেন হুগলির সেই সাঁতারু।

কে এই কোচ? শোনা যাচ্ছে তিনি আগে পূর্ব রেলে চাকরি করতেন। রেলের চাকরি ছেড়ে এখন গোয়ায় গিয়ে সরকারি স্যুইং পুলে ট্রেনিং দেন। হুগলির তরুণ সাঁতারুর পরিবারের বক্তব্য, 'অনেক কষ্ট করে তাকে সাঁতারের ট্রেনিংয়ের জন্য গোয়ায় পাঠানো হয়েছিল। বাড়ি ভাড়া করে তরুণী সাঁতারুর সঙ্গে তার মা ও বাবা গোয়ায় থাকত। কিন্তু দিনের পর দিন শ্লীলতাহানি সহ্য করতে না পেরে সে চলে আসে। এই ঘটনায় রিষড়া থানা লিখিতভাবে অভিযোগ জমা পড়েছে। তরুণী সাঁতারুর বাবা গাড়ি চালিয়ে মেয়েকে দেশের সেরা করার স্বপ্ন দেখেন।