পশ্চিমবাঙলায় আর নয়, কাশ্মীরের মত দার্জিলিংকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বানানোর দাবি বিমল গুরুংয়ের
দার্জিলিংকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বানানোর ডাক বিমল গুরুংয়ের। (Photo Credits: Facebook)

নয়া দিল্লি, ৬ অগাস্ট: জম্মু-কাশ্মীরের (Jammu-Kashmir) মত এবার দার্জিলিং (Darjeeling) কেও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল (Union Territory) বানানোর দাবি তুললেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা নেতা বিমল গুরুং (Bimal Gurung)। পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal) থেকে বের  করে, দার্জিলিংকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করুক কেন্দ্র সরকার এমনই দাবি করলেন গুরুং। গুরুংয়ের দলের জন্ম পৃথক গোর্খাল্যান্ড বানানোর দাবি নিয়ে। কাশ্মীর ইস্য়ুতে উত্তাল দেশ, তারই মাঝে গোর্খাল্য়ান্ডকে অন্যভাবে ভাসিয়ে দিলেন গুরুং।

জম্মু-কাশ্মীরে যেভাবে সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদ করে, ভূ স্বর্গকে দুটি পৃথকভাবে ভাগ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করেছে কেন্দ্র, সেই মডেলের প্রয়োগ এবার দার্জিলিংকেও চান গুরুং। অতীতেও নানা বিষয়ে দার্জিলিংকে কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন গুরুং। শুধু কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল নয়, কেন্দ্রশাসিত দার্জিলিংয়ে বিধানসভাও থাকা উচিত বলে দাবি করেন গুরুং।

গুরুংয়ের ঘনিষ্ঠ সহযোগী তথা গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা রোশন গিরিও বলেন, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করলে দার্জিলিং সমস্যার সমাধান হবে। আরও পড়ুন-কাশ্মীর নিয়ে মমতা ব্যানার্জি যা বললেন 

সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল নিয়ে নরেন্দ্র মোদি-অমিত শাহ-কে অভিনন্দনও জানিয়েছেন বিমল গুরুং। প্রসঙ্গত, জম্মু-কাশ্মীরকে দু ভাগে ভাগ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়েছে। জম্মু-কাশ্মীরকে বিধানসভা থাকছে। তবে অন্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল লাদাখে বিধানসভা থাকছে না। গুরুংদের সমর্থনে দার্জিলিংয়ে বিপুল ভোটে জেতা বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত বলেন, ''২০২৪ সালের আগেই দার্জিলিংয়ে স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধান করা হবে।''