১২ ঘণ্টা টানাপোড়েনের পর স্বাভাবিক ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ইনস্টাগ্রামেও দেখা যাচ্ছে ছবি
প্রতীকী ছবি(Photo credit: Pixabay)

১২ ঘণ্টা প্রতিক্ষার পর স্বাভাবিক হল ফেসবুক (Facebook) হোয়াটসঅ্যাপ (whatsApp) ও ইনস্টাগ্রাম (Instagram) পরিষেবা।  বুধবার থেকেই ফেসবুকে, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রাম নিয়ে বিপাকে পড়েন নেটিজেনরা। সেখানে কোনওরকম ছবি পোস্ট করা যাচ্ছিল না। কোনও ছবি ইনবক্সে যাচ্ছিল না। ফেসবুক তেকে তো ছবিই অদৃশ্য হয়ে যায়। এই আচমকা সমস্যায় অনেকে নেটওয়ার্ক গোলমাল ভেবেছিলেন। কেউ বা হ্যাকিংয়ের ভয়ে কাঁটা হয়ে গিয়েছিলেন। তবে এটা কোনও এক দুইজন টেক স্যাভির ক্ষেত্রে হয়নি, গোটা পৃথিবীজুড়েই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। যাইহোক বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পরিষেবা স্বাভাবিক। যাঁরা গতকাল রাতে ঘুমতো যাওয়ার আগে ভেবেছিলেন ফেসবুকটা এবার গেলই বুঝি। তাঁরা অন্তত আজ আর হতাশাগ্রস্ত হবেন না। আরও পড়ুন- আল্ট্রাওয়াইড অ্যাঙ্গল থ্রিডি ডেপথ ক্যামেরা, বাজারে এল স্যামসাং গ্যালাক্সির নতুন ফোন

উল্লেখ্য, বুধবারই বিশ্বজুড়ে সমস্যায় পড়েন ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। একই হাল ইনস্টাগ্রামেও। কিছু ডাউনলোড করতে গেলেই স্ক্রিনে ভেসে উঠছে ‘দুঃখিত ডাউনলোড সম্ভব নয়’। শুধু ডাউনলোড নয়, ছবি বা ভিডিয়ো আপলোডেও হচ্ছে সমস্যা। আপলোড বা ডাউনলোড করা যাচ্ছে না অডিয়ো-ও। ইউরোপ, আফ্রিকা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি এই সমস্যা দেখা গিয়েছে ভারতেও। টুইটারে নিজেদের সমস্যার কথা জানিয়েছেন নেটিজেনরা।

জানা গিয়েছে, ফেসবুকের সার্ভারে বড়সড় সমস্যার কারণেই এই বিপত্তি ঘটেছে। আর এই সার্ভারের মাধ্যমেই ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রামের পরিষেবা প্রদান করা হয়। তাই ফেসবুকের সার্ভারে সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে গন্ডগোল শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার বাকি প্ল্যাটফর্মগুলোতেও। ইতিমধ্যেই ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে টুইট করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, ব্যবহারকারীদের এই সমস্যার জন্য তারা ক্ষমাপ্রার্থী। যত দ্রুত সম্ভব এই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে। তাড়াতাড়িই এই সমস্যার সমাধান করে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপের পরিষেবা স্বাভাবিক করা হবে বলে আশ্বাসও দিয়েছিল, রাত পোহাতে না পোহাতেই সমস্যা  মিটেছে, এই দেখে স্বস্তির ছাপ নেটিজেনদের মধ্যে। অনেকেই স্টেটাস দিয়ে সমস্যা মেটার খবর জানিয়েছেন।এর আগে চলতি বছর জুন মাসেও এই একই ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলেন ইনস্টাগ্রামের ব্যবহারকারীরা। কিছুতেই ছবি, ভিডিও কিংবা অডিয়ো ডাউনলোড বা আপলোড সম্ভব হচ্ছিল না।