ICC World Cup 2019: ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের মাঝে হাই তুললেন অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ, লজ্জার হারের মাঝে পড়ল ফোড়ন (দেখুন এই নিয়ে হাস্যকর সব মিম)
এভাবেই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের মাঝে হাই তুললেন পাক অধিনায়ক সরফরাজ। (Photo Credits: Twitter)

ম্যানচেস্টার, ১৭ জুন: রবিবার বিশ্বকাপে (ICC World Cup 2019) ম্যানচেস্টারে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে একেবারে লজ্জার হারের মুখে পড়ে পাকিস্তান। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডিএল পদ্ধতিতে ৮৯ রানের ব্যবধানের হার দিয়ে বিরাট কোহলিদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের লজ্জার হারকে ব্যাখা করা যাবে না। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং সব বিভাগেই ভারতের কাছে পর্যদুস্ত হয় পাকিস্তান। দুই অধিনায়কয়ের বিভিন্ন রকম সিদ্ধান্ত, থেকে বডি ল্য়াঙ্গুয়েজ-সবেতেই ধরা পড়ল আকাশ পাতাল ফারাক।

বিরাট কোহলি-র মধ্যে যখন আগ্রাসী, আক্রমণাত্মক, নিজেকে উজাড় করা বডি ল্যাঙ্গুয়েজ ধরা পড়ল, তখন পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে দেখা গেল একেবারে ন্যাতানো বডি ল্যাঙ্গুয়েজে। আরও পড়ুন-বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারানোর ট্র্যাডিশন বজায় রেখে 'সাতে সাত' ভারতের, সরফরাজদের D/L পদ্ধতিতে ৮৯ রানে হারিয়ে বিরাট জয় কোহলিদের

দেশের প্রধানমন্ত্রী, তথা বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ইমরান খান পাকিস্তান দলকে পরামর্শ দিয়েছিলেন টসে জিতলে প্রথমে ব্যাট করার। কিন্তু টসে জিতে ভারতকে প্রথমে ব্য়াট করতে পাঠানোটা বুমেরাং হয়ে দাঁড়ায় সরফরাজের কাছে। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিরা যখন একেবারে দিশাহারা করে দিচ্ছেন পাক বোলারদের, তখন সরফরাজকে দলের বোলারদের সঙ্গে কোনও কথা বলতে দেখা গেল না। বরং একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেল সরফরাজ হাই তুলছেন। দেখুন ছবিতে--

যেখানে বিরাট কোহলি যে কোনও প্রয়োজনে বোলারদের পাশে থাকতে ছুটে গেলেন। দেখুন সরফরাজের হাই তোলা নিয়ে মজার নানা মিম

কোহলি-সরফরাজের ফারাক

আরও একটা মজার টুইট

এদিকে, ভারতের কাছে হারের পর পাক অধিনায়ক সরফরাজকে নিয়ে জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে পাক মিডিয়ায়। এখনও পর্যন্ত চলতি বিশ্বকাপে ৪টি ম্যাচ খেলে মাত্র ১টিতে জিতেছে পাকিস্তান। সরফরাজ ২টি হেরেছেন, একটি ম্য়াচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ায় পেয়েছেন এক পয়েন্ট। সামনে অনেক কঠিন ম্যাচ পাকিস্তানের। ভারতের কাছে খারাপভাবে হারের পর সরফরাজদের শেষ চারে দেখছেন না তাদের দেশের প্রাক্তনারই। বিশ্বকাপে নামার আগেও অবশ্য পাকিস্তানের ফর্ম মোটেও ভাল ছিল না। ইংল্যান্জের কাছে ০-৪ হারের পর ওয়ার্ম আপে আফগানিস্তানও হারিয়ে দিয়েছিল পাকিস্তানকে। আসলে এই পাকিস্তান দলে ম্যাচ উইনার নেই। অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের মধ্যে মরিয়া ভাব চোখে পড়ছে না। বিশ্বকাপে পাকিস্তান মানেই যে আক্রমণাত্মক বডি ল্যাঙ্গুয়েজ সেটাও ধরা পড়ছে না। বরং সরফরাজ এত বড় একটা ম্যাচের মাঝে হাই তুলছেন।