আকাশ থেকে বিহারের গ্রামে বিকট শব্দে আছড়ে পড়ল ১০ কেজির অদ্ভুত দর্শন বস্তু, চুম্বকীয় শক্তি থাকা বস্তুটিকে ঘিরে জল্পনা
উল্কাপিণ্ড। (Representational Image|Getty Images)

মধুবনী, ২৪ জুলাই: Meteorite in Bihar? ঠিক যেমনটা কল্প বিজ্ঞানের সিনেমায় হয়। উত্তর বিহারের মধুবনী (Madhubani)-র মহাদেব নামের এক গ্রামে অন্য দিনগুলির মতই মাঠে চাষ করছিলেন কৃষকরা। আচমকা তারা একটা বিকট আওয়াজ শুনে চমকে যান। বোঝাই যাচ্ছিল শব্দটা আকাশ থেকে পড়া কোনও বস্তুর শব্দ। একটু খোঁজ করার পরেই দেখা যায় উল্কা পিন্ডের মত একটি জিনিস অন্তত পাঁচ ফুটের গর্ত করে মাটিতে ঢুকে রয়েছে।

তবে বস্তুটিকে ভাল করে দেখে স্থানীয়দের অনেকেই বলছিলেন, এটা ঠিক উল্কাপিন্ড নয়। গ্রামবাসীরা এরপর প্রশাসনিক অফিসে খবর দেন। কেজি দশকের অদ্ভুত দর্শনের জিনিসটা যত্ন সহকারে নিয়ে যান প্রশাসনিক কর্তারা। প্রশাসনিক কর্তারদের সঙ্গে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করতে আসেন বিজ্ঞানীরাও। আরও পড়ুন-চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে গিয়ে নাড়িভুঁড়ি হাতে নিয়ে ৯ কিমি হেঁটে প্রাণে বাঁচল যুবক

মধুবনী জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, শিরসাত কপিল অশোক জানান, ' লাউকাহি পুলিশ স্টেশনের মহাদেব গ্রামে যে বস্তু (অবজেক্ট)-টি পাওয়া গিয়েছে তা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।'' অদ্ভুত দর্শন বস্তুটির ওজন ১০কেজি বলে জানানো হয়েছে। বস্তুটিতে চুম্বক ক্ষমতা রয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।"তিনি জানান প্রাথমিকভাবে বস্তুটিকে দেখে উল্কাপিণ্ড বলেই মনে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনিক প্রধান জানিয়েছেন, বিজ্ঞানীদের জানানো হয়েছে যে মধুবনী-র এক গ্রামে যে বস্তুটি পাওয়া গিয়েছে সেটা একটা চকমকে পাথর। এর চুম্বকীয় শক্তিও বেশ চোখে পড়ার মত। যতক্ষণ না বস্তুটিকে ঠিকভাবে পরীক্ষা করা হচ্ছে, ততক্ষণ বলা সম্ভব নয়, সেটা কী বা কোথা থেকে এসেছে। গ্রামবাসীদের কাছে কোনও রকম গুজব না ছড়ানোর আবেদন জানো হয়েছে।

বস্তুটি ঠিক কী তা নিয়ে এলাকায় জোর জল্পনা। গল্পের বই, সিনেমায় এমন ঘটনা বেশ কয়েকবার দেখা গিয়েছে। সত্যজিত রায়ের প্রফেসর শঙ্কুতেও এমন ধরনের ঘটনা নিয়ে একটা গল্প আছে। হলিউডে তো এমন গল্পের ওপর অনেক সিনেমা আছে। এই খবর নিয়ে নেটিজেনরা শোরগোল শুরু করেছেন। কেউ বলছেন, একটা অন্য কোনও গ্রহের যানের ধ্বংসাবশেষ। তবে বেশিরভাগই নেটিজেনই বলছেন এটা একটু অন্য ধরনের উল্কাপিন্ড।