ছুরিকাঘাতে জখম অন্তঃসত্ত্বা, মায়ের রক্তমাখা দেহের পাশেই চোখ মেলল সদ্যোজাত
প্রতীকি ছবি( Photo Credit: Pixabay)

লন্ডন, ১ জুলাই: লন্ডনে আততায়ীর মুহুর্মুহু ছুড়িকাঘাতে সন্তানসম্ভবা মহিলার মৃত্যু হল। তবে মৃত্যুর আগেই সন্তানের জন্ম দিয়ে গিয়েছেন আক্রান্ত মহিলা। রক্তাক্ত অবস্থাতে যখন আততায়ীরা তাঁকে ফেলে চম্পট দেয়, তখনই কোনওরকমে পুলিশকে ফোন করেছিলেন তিনি। তড়িঘড়ি সেখানে পুলিশ ও ডাক্তাররা পৌঁছালে দেখেন একেবারে শেষ সময় উপস্থিত হয়েছেষ রক্তের নদীতে পড়ে আছেন মৃত্যুপথ যাত্রী অন্তঃসত্ত্বা মহিলা। ধীরে ধীরে শ্বাস পড়ছে। ডাক্তার ও উপস্থিত পুলিশকর্মীদের মধ্যে সকলেই জানতেন আর বেশিক্ষণ নেই। তাই মৃত্যুপথ যাত্রীর শেষ ইচ্ছে রাখতেই তাঁর সন্তানের জন্ম দেওয়া হয়। আরও পড়ুন-পাঁচতলা থেকে পড়ছে ছেলে ঝাঁপিয়ে প্রাণ বাঁচালেন মা, (দেখুন ভিডিও)

জানা গিয়েছে, সন্তান জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই মারা যান তিনি। এদিকে গর্ভে থাকাকালীন মা আক্রান্ত হওয়ায় শিশুটিরও অক্সিজেন পেতে সমস্যা হচ্ছিল। তাই সুস্থভাবে জন্ম হলেও সদ্যোজাতর পরিস্থিতি এখনও সংকট জনক। তাকে হাসপাতালের শিশুদের জন্য নির্দিষ্ট নিওনেটাল কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে। মূলত অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে ওই মহিলার প্রসব করানো হয়, তাই প্যারে মেডিক পদ্ধতির উপরেই ডাক্তাররা ভরসা করেছিলেন। সন্তান প্রসবের পরেই ওই মহিলার মৃত্যু হয়। শনিবার রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ লন্ডন থেকে বেশ কানিকটা দূরের ক্রোডাইন এলাকার একটি আবাসনে। সেখানেই থাকতেন তিনি। তবে এখনও পর্যন্ত শিশুটির কোনও নিকট আত্মীয়র খোঁজ মেলেনি। মহিলার স্বামী ছিলেন কি না, থাকলেও তিনি কোথায় সে সম্পর্কে কোনও তথ্যই পায়নি পুলিশ।

লন্ডন পুলিশের ডিটেকটিভ চিফ ইনস্পেকটর মিক নর্ম্যান বলেছেন, মৃত মহিলার নাম কেলি মেরি ফবরেলে। বছর ২৬-র মহিলা আটমাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। কে বা কারা কেনই বা তাঁকে আক্রমণ করে ওভাবে মারল তা এখনও স্পষ্ট নয়। ঘটনার তদন্ত চলছে। ইতিমধ্যেই এই খুনে জড়িত সন্দেহে বছর ২৯-র এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার সময় ধৃতর সঙ্গে বছর ৩৭-এর আরও একজন ছিল। ধৃতকে জেরা করে তার অবস্থান জানার চেষ্টা চলছে। তদন্তের স্বার্থেই ধৃতের নাম এখনই প্রকাশ্যে আনা হবে না। দেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে, তদন্ত রিপোর্ট বলছে অত্যন্ত নৃশংসতার সঙ্গেই মহিলাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। সন্তান জন্মের পরেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়।