হিন্দু পুরুষরা দ্বিতীয় বিয়ে করলেই তাদের কপালে দুর্গতি নাচছে, হুঁশিয়ারি দিলেন যোগী আদিত্যনাথ
যোগী আদিত্যনাথ(Photo Credit: IANS)

লখনউ, ২৬ সেপ্টেম্বর: দ্বিতীয় বিয়ের প্রশ্নে এবার হিন্দু পুরুষদের বিরুদ্ধে সরব হলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বিবাহিত হিন্দুদের রীতিমতো হুঁশিয়ার দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কোনও কারণে যদি প্রথম স্ত্রীকে পরিত্যাগ করে দ্বিতীয় বিয়ের আয়োজন করা হয় তাহলে ওই পুরুষের জন্য কঠোর শাস্তির বন্দোবস্ত করছে সরকার। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদে গেলেই ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিন তালাকের শিকার হওয়া মহিলাদের সঙ্গে এক অনুষ্ঠানের আলোচনা পর্বেই একথা বলেন যোগী আদিত্যনাথ। একই সঙ্গে সেই সব পুলিশকর্তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন যোগী আদিত্যনাথ, যেসব পুলিশকর্তারা অভিযোগ পেয়েও তিন তালাকের নতুন আইন মেনে কাজ করে না।

যদি তিন তালাকের পাশাপাশি কোনও হিন্দু পুরুষ দ্বিতীয় বিয়ের করার তাড়নায় প্রথম স্ত্রীকে কষ্ট দেয়, পরিত্যাগ করে তবে তার কপালে অশেষ দুর্গতি নাচছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার হবে কোনওরকম ছাড় দেওয়ার প্রসঙ্গই নেই। ওই অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করার পর রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব অবনিশ অবস্তিকে নির্দেশও দেন মুখ্যমন্ত্রী (Yogi Adityanath)। বলেন, অনুষ্ঠানে উপস্থিত তিন তালাক প্রাপ্ত মহিলাদের মামলাগুলির যাবতীয় অগ্রগতি যেন খুটিয়ে দেখা হয়। পুলিশি তদন্তে কোনওরকম ত্রুটি থাকলে তা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঠিক করতে হবে। মহিলারা যাতে সুবিচার পান সেদিকটা পুলিশ যেন যত্ন নিয়েই দেখে। এরপরে তিন তালাক প্রাপ্ত মহিলাদের জন্য বার্ষিক ৬ হাজারের আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করেন তিনি। তাঁদের পুনর্বাসনের বিষয়টি দ্রুত কার্যকর করতে প্রতিটি বিভাগকেও যথাযথ নির্দেশ দেন। আরও পড়ুন-যোগীর রাজ্যে জনমোহিনী ঘোষণা, তিন তালাক প্রাপ্ত মহিলারা পাবেন বার্ষিক ৬০০০ টাকা

এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিন তালাক প্রাপ্ত মহিলাদের মধ্যে যারা শিক্ষিত তাঁদের কাজের ব্যবস্থা করা হোক। যাঁদের বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে তাঁদের জন্য প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ও মুখ্যমন্ত্রী আবাস যোজনায় বাড়ি করে দেওয়া হোক। এই অসহায় মহিলারা যাতে ওয়াকফ বোর্ড থেকে আর্থিক সহায়তা পেতে পারেন তার ব্যবস্থাও করা হবে। তিন তালাকের পক্ষ নেওয়ায় এই মর্মে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি