UP Shocker: মায়ের গায়ে আগুন লাগানোর পর নিজেও বিষ খেলেন ছেলে!
Poison (Photo credits: Pixabay)

ভাদোহি, ২৭ এপ্রিল: মায়ের গায়ে আগুন (Fire) লাগিয়ে দিয়ে নিজেও বিষ (Poison) খেলেন ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ভাদোহি জেলার মুক্তাপুর গ্রামে। ৬০ বছরের মায়ের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম রাজকুমারী দেবী। অন্যদিকে, হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ছেলে মহাজন। পুলিশ জানিয়েছে, মহাজন স্ত্রীকে মারধর করছিলেন। তাঁর মা রাজকুমারী এর প্রতিবাদ করেন। মহাজন এরপর রাগে তাঁর মায়ের গায়ে আগুন লাগিয়ে দিয়ে নিজেও বিষ খান। স্থানীয় থানার পুলিশ আধিকারিক অজয় ​​শেঠ জানিয়েছেন রাজকুমারী দেবী বারাণসীর একটি হাসপাতালে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান। তাঁর ছেলে বারাণসীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তাঁর অবস্থাও গুরুতর।

প্রাথমিক তদন্তে এটা প্রকাশ্যে এসেছে যে রাজকুমারী দেবীকে তাঁর ঘর খালি করার জন্য চাপ দিতেন মহাজন। কারণ স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে সেখানেই থাকতে চেয়েছিলেন মহাজন। এ নিয়ে তাঁর মায়ের সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়াও হত। সোমবার রাতে মহাজন মদ্যপ অবস্থায় বাড়িতে এসে স্ত্রীকে বিষ খাওয়ানোর চেষ্টা করেন। স্ত্রী বাধা দিলে মারধর করতে শুরু করেন। রাজকুমারী দেবী বাধা দিতে এলে তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন মহাজন। পরে নিজেও বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। আরও পড়ুন: PM Modi To Meet CMs Over Covid: দেশের কোভিড পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আজ মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজকুমারী দেবীকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁকে বারাণসীতে রেফার করে দেওয়া হয়। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে তিনি মারা যান। অন্যদিকে, মহাজনকে প্রথমে মির্জাপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। পরে তাঁকেও বারাণসীকে রেফার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।