টিকটকে স্টান্ট ভিডিও করতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ, নিখোঁজ ১ যুবক
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: Pixabay)

দেওরিয়া, ৩ জুলাই: টিকটক (TikTok), চিনা সংস্থা বাইটডান্সের এই জনপ্রিয় অ্যাপটির নাম প্রকাশ্যে এলেই বোঝা যায় ফের কোনও অঘটন ঘটেছে। বার বার টিকটক নরকের দক্ষিণ দুয়ার দেখিয়ে দিলেও তার আসক্তি থেকে সরছে না যুব সমাজ। জনপ্রিয় ভিডিও অ্যাপের দৌলতে তাই মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে হুড়মুড়িয়ে। স্টান্ট দেখানোর জন্য অনেকেই ব্যবহার করছে এই ভিডিও অ্যাপ। আর এর জেরেই সাধ করে ডেকে আনছে মৃত্যুকে। হিরো হওয়ার লোভ ছাড়তে না পেরে সোজা পরপারে যাত্রা করছে যুব সমাজের একাংশ। টিকটকে ভিডিও দেখানোর নেশায় বিরজ থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক যুবক। আরও পড়ুন- রাহুল গান্ধী-র পদত্যাগ, কোনও অনুরোধ না শুনে লোকসভা ভোটের ভরাডুবির দায় নিয়ে কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা সোনিয়া পুত্রের

জানা গিয়েছে, চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের দেওউরিয়া জেলার (Deoria district, up)। দানিশ ও আশিক নামের দুই যুবক টিকটকে স্টান্টের ভিডিও প্রকাশ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছিল। সাতপাঁচ না ভেবেই জনবহুল ব্রিজ থেকে তারা নদীতে ঝাঁপ দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা দানিশকে উদ্ধার করতে পারলেও এখনও আশিকের কোনও সন্ধান মেলেনি। সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে স্থানীয় ছোটি গণ্ডক নদীতে। দুর্ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ আশিকের খোঁজ চালাচ্ছেন ডুবুরিরা। দেওরিয়া সিটি পুলিশের এসএইচও রাজেন্দ্র সিংহ বলেছেন, “নিখোঁজের দেহ উদ্ধারের জন্য খোঁজ চালাচ্ছে ডুবুরির একটি দল।” এদিকে এই ঘটনা ঘটার পরই ওই ঘাটের কাছে ভিড় জমে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরাই পুলিশকে খবর দিয়েছিল, ঘটনাস্থলে পৌঁছে অনেকেরই বয়ান নথিভুক্ত করেছে পুলিশ। সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, ব্রিজ থেকে প্রথমে ঝাঁপ মারে দানিশ। তখন সেটির ভিডিয়ো করছিল আশিক। সঙ্গে এই কাজের জন্য দানিশকে উৎসাহিতও করছিল। এর পরই হঠাৎই ঝাঁপ দেয় সে-ও।

পুলিশ সূত্রের খবর, দানিশ অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছে। সে আদতে হায়দরাবাদের বাসিন্দা। এখানে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছে। সেই পেশায় অটোচালক আশিকের সঙ্গে তার আলাপ হয়। দুজনে দারুণ ভাব জমেছিল, তারপরই কখন টিকটকের ভিডিও-র শখ তাদের মাথায় চাপে। যা আশিকের মৃত্যু ডেকে আনল। গোটা ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।