Rajasthan Political Crisis: উপমুখ্যমন্ত্রী ও প্রদেশ সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল শচিন পাইলটকে, মরুরাজ্যে তুঙ্গে রাজনৈতিক অস্থিরতা
সচিন পাইলট (Photo Credits: PTI)

জয়পুর, ১৪ জুলাই: রাজস্থানে (Rajasthan) রাজনৈতিক অস্থিরতা আরও তুঙ্গে। বড়সড় সিদ্ধান্ত নেয় রাজস্থান কংগ্রেস (Congress)। উপমুখ্যমন্ত্রী (Deputy CM) ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি (State Congress Committee Chief) পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় শচিন পাইলটকে (Sachin Pilot)। শচিননের সমর্থনে বিদ্রোহে যোগ দেওয়া আরও দু'জন মন্ত্রীকে তাঁদের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। গোবিন্দ সিং-কে (Govind Singh) রাজস্থান কংগ্রেসের নতুন প্রদেশ সভাপতি করা হয়। এ দিকে, এ দিনই রাজস্থানের রাজ্যপাল কালরাজের সঙ্গে দেখা করেছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। আপাতত শচিন বনাম গেহলটকে নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। ঘোড়া কেনাবেচার আবহাওয়া মরুরাজ্যে।

শচিন পাইলট, অশোক গেহলট সরকার ফেলার ষড়যন্ত্রে সামিল হয়েছেন বলে অভিযোগ তুলেছিলেন কংগ্রেসের মুখ্য মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা। রাজস্থানে বর্তমান পরিস্থিতিতে তাঁকে আর দলের আর এক শীর্ষ নেতা অজয় মাকেনকে রাজস্থানে পাঠিয়েছিল হাইকম্যান্ড। নিজের অবস্থান থেকে সরে এসে ফের দলীয় শৃঙ্খলা মানার জন্য সচিনকে দু'বার সময় দিয়েছিল কংগ্রেস। এ দিন দলের তরফে বলা হয়েছে, রাজস্থানে সরকার ফেলতে বিজেপির পাতা ফাঁদে পা দিয়েছেন সচিন। আরও পড়ুন, সরকার বাঁচাতে অশোক গেহলতের বৈঠকের পর বাসে চড়ে কংগ্রেস বিধায়করা চললেন রিসর্টে, দেখুন ছবি

সোমবার দিনভর রাজস্থান নিয়ে টালমাটাল হয় রাজনীতি। ১০৭ জন বিধায়ককে নিয়ে রিসর্টে বেঁধে রাখেন গেহলট! অন্যদিকে, সোমবার লোকচক্ষুর আড়ালে হরিয়ানার রিসর্টে দিনভর গোপন বৈঠক করেন শচিন   পাইলট। সোমবার রাত পর্যন্তও স্পষ্ট হয়নি কংগ্রেসের শচিন পাইলট ঠিক কী সিদ্ধান্ত নেবেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে সচিন বিজেপিতে যোগ দেন কি না, সেটাই দেখার। যদিও সচিন জানিয়েছিলেন, বিজেপিতে তিনি যোগ দিচ্ছেন না।