Yogendra Mehta: চার মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে আশ্রম থেকে গ্রেফতার 'গডম্যান' যোগেন্দ্র মেহেতা

জয়পুর, ২৬ মে: দেশের আরও এক স্বঘোষিত গডম্যানের কুকীর্তি ফাঁস। এবার রাজস্থানের জয়পুর-আজমের হাইওয়ের ধারে এক আশ্রমের স্বঘোষিত গডম্যান যোগেন্দ্র মেহেতা (Yogendra Mehta)-র কাণ্ড শুনে গোটা দেশের মাথায় হাত। নিজের বেশ একটা নাম দিয়েছেন যোগেন্দ্র। সবাইকে তিনি তপস্বী বাবা বলে ডাকতে বলেন। একই পরিবারের তিন মহিলা সহ চার জনের ধর্ষণ, যৌন হেনস্থার অভিযোগে সেই স্বঘোষিত গডম্যানকে তার আশ্রম থেকে গ্রেফতার করে রাজস্থান পুলিশ।  Bihar Shocker: গণধর্ষণের পর মহিলাকে নগ্ন অবস্থায় বিদ্যুতের খুঁটিতে ঝোলানো হল

২০০৫-২০১৭ সালের মধ্যে নানা রকমভাবে প্রলোভিত করে, কখনও ভয় দেখিয়ে তপস্বী বাবা মহিলাদের ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেন ৪৫ বছরের এক মহিলা। ২০০৫ সাল থেকে সেই মহিলা আশ্রমে বাবার দর্শন পেতে যেতেন বলে জানান। নানা বাহানায় তাঁকে তার আশ্রমের ব্যক্তিগত ঘরে ডেকে এনে গডম্যান যোগেন্দ্র মেহেতা বছরের পর বছর ধর্ষণ করেন বলে মহিলার অভিযোগ। বাইরের কাউকে বললে, তাঁর পরিবারের সবাইকে খুনের হুমকি দেওয়া হত বলেও মহিলার অভিযোগ।

আশ্রমে অন্য মহিলাদের পাশাপাশি তার দুই ননদকেও ধর্ষণ করে তপস্বী বাবা, এমই অভিযোগ ৪৫ বছরের সেই মহিলার। মহিলা পুলিশের দ্বারস্থ হন তখনই যখন তপস্বী বাবা তার ২০ বছরের মেয়েকেও আশ্রমে তার সেবায় কাজে লাগাতে চান। পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ৪মে স্বঘোষিত এই গডম্যানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল। এরপর তপস্বী বাবার বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ জমা পড়তে থাকে। দশজন মহিলা এই তপস্বী বাবার বিরুদ্ধে হয় ধর্ষণ বা যৌন হেনস্থা, নির্যাতনের অভিযোগ জমা করেছেন। আশ্রমে ধর্ষণের আগে মহিলাদের পানীয়ে কিছু মিশিয়ে দেওয়া হত বলে অভিযোগ। তপস্বী বাবার বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। তাঁকে আপাতত বাখরোটা পুলিশ স্টেশনে বন্দি করে রাখা হয়েছে।