Hand Sanitiser, Face Mask Prices Capped: কালোবাজারি রুখতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্কের দাম বেঁধে দিল কেন্দ্রীয় সরকার
প্রতীকী ছবি

নতুন দিল্লি, ২১ মার্চ: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার (Hand Sanitiser) ও মাস্কের (Face Mask) বিক্রি ও চাহিদে বেড়েছে। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে কালোবাজারি। পরিস্থিতির সুযোগে কোথাও কোথাও মাস্ক ও স্যানিটাইজার কালোবাজারি হচ্ছে। এমন সময়ে মাস্ক ও স্যানিটাইজারের দাম বেঁধে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। অতি প্রয়োজনীয় পণ্য আইনের আওতায় স্যানিটাইজারের দামের সর্বোচ্চ সীমা বেঁধে দিল কেন্দ্র। উপভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান (Union Minister Ram Vilas Paswan) জানিয়েছেন যে, প্রতিটি দু-তিন ভাঁজের মাস্ক ৮ থেকে ১০ টাকা দামেই বিক্রি করতে হবে। এছাড়া ২০০ মিলিলিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০ টাকা।

আগামী জুন মাস পর্যন্ত হ্য়ান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্কের এই দামই বলবৎ থাকবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় উপভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান বলেন, "করোনাভাইরাস প্রকোপের পর থেকে ভারতের বাজারে হ্য়ান্ড স্য়ানিটাইজার ও মাস্কের দাম বেড়েছে। সরকার যা গুরুত্বের সঙ্গে বিচার করেছে। মানুষের সুবিধায় তাই ওই দুই প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বেঁধে দেওয়া হল।" আরও পড়ুন: Indian Railways Relaxes Refund: খানিক স্বস্তি! আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ট্রেনে কাটা টিকিটের দাম ফেরত পাবেন যাত্রীরা

এর আগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরিতে ব্যবহৃত অ্যালকোহলের উৎপাদকরা এর দাম অস্বাভাবিক বাড়িয়ে দেওয়ায় সরকার অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের আওতায় অ্যালকোহলের দাম গত ৫ মার্চের মতো বহাল রাখার নির্দেশ দিয়েছে। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এই দাম বলবৎ থাকবে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সামগ্রী উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামালগুলিও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের আওতায় আসবে। এখন থেকে রাজ্যগুলিও কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি ছাড়াই হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনে ব্যবহৃত অ্যালকোহল উৎপাদকদের মূল্য না বাড়ানোর নির্দেশ দিতে পারবে।