Vidhan Sabha By Election 2019: ভাটপাড়ায় মদন মিত্রের কাজটা খুব কঠিন কেন

মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) তাঁর নাম ভাটপাড়া (Bhatpara) উপনির্বাচন (By election)-এ তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে ঘোষণার পর মদন মিত্র (Madan Mitra) বলেছিলেন, তিনি অভিভূত। তিনি ভাটপাড়ায় উপনির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার আনন্দের সঙ্গে মদন মিত্র তুলনা করেছিলেন, ভারতরত্ন ও লটারী জেতার। সারদা কাণ্ডে জেল খাটার পর দলের সঙ্গে অনেকটা দূরত্ব তৈরি হয়ে গিয়ে মদন কোণঠাসা হয়ে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ফের দিদির সুনজরে এসে প্রার্থী। অর্জুন সিং (Arjun Singh)-য়ের গড় ভাটপাড়ায় মদন মিত্রকে নামিয়ে তৃণমূলের পতাকা ওড়াতে চাইছেন মমতা ব্যানার্জি। আর মদন চাইছেন এই অগ্নিপরীক্ষায় পাশ করে ফের দিদির দু হাতের আশীর্বাদ পেতে। মদন মিত্র জোরকদমে প্রচারে নেমে পড়েছেন।

ভাটপাড়া চষে বেরাতে পুরো দল নিয়ে মদন মিত্র হাজির। রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণ- ক্রীড়ামন্ত্রী বলছেন, তিনি ভাটপাড়ায় জিততে আশাবাদী। তবে তাঁর কাজটা বেশ কঠিন। কারণ ভাটপাড়ায় অর্জুন সিংয়ের ব্যক্তিগত ক্যারিশ্মা দেখার মত। তৃণমূলের অতি দুর্দিনেও অর্জুন তৃণমূলের টিকিটে বড় ব্যবধানে জিতেছেন।

অর্জুনের ব্যক্তিগত সংগঠনও বেশ জোরদার। তার সঙ্গে যোগ হচ্ছে বিজেপি ও মুকুল রায়ের সংগঠন। ২০০১ সালে প্রথমবার ভাটপাড়ায় জিতে বিধায়ক হন অর্জুন সিং। এই কেন্দ্রে সিপিএমকে হারানো যায় না এই মিথটা ভাঙেন অর্জুন। তারপর থেকে ভাটপাড়া মানেই অর্জুন। তাঁর বিরুদ্ধে দাদাগিরি, গুন্ডামির অনেক অভিযোগ শোনা যেত। কিন্তু ভোটের ফল বেরলেই দেখা যেত অর্জুন বড় ব্যবধানে জিতছেন। সেই অর্জুন তৃণমূল ছেড়ে লোকসভায় ব্যারাকপুর থেকে বিজেপি প্রার্থী। আর তাই এখানে উপনির্বাচন।

ভাটপাড়ায় অর্জুনের বদলি মদন মিত্রই হতে পারেন মমতার এই ভাবনায় কতটা সাফল্য আসবে সেটা নিয়ে প্রশ্ন রয়েই যাচ্ছে। কারণ বয়সের ভারে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছেন মদন। শ্রমিক নেতা হিসেবে সে দাপটও আর নেই। অনুরাগী যে এখনও আছে তা অস্বীকার করার জায়গা নেই। তবে সেই অনুরাগী কী অর্জুনের অনুরাগীর সংখ্যা ছাপিয়ে যাবে। কারণ গত কয়েক বছরে ভাটপাড়া এলাকায় যে দাপট অর্জুন সিং দেখিয়েছে তাতে মদনের কাবু হতে পারেন। সম্ভাবনা ফিফটি ফিফটি বলা যায়।