Nirbhaya Case: ফাঁসি নয় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হোক, শীর্ষ আদালতে আবেদন নির্ভয়ার ধর্ষক-খুনি পবন গুপ্তার
সুপ্রিম কোর্ট (Photo Credits: IANS)

নতুন দিল্লি, ২৮ ফেব্রুয়ারি: ফাঁসির সাজা বদলে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হোক। ৩ মার্চ সকাল ছটায় ফাঁসি। আর ২৮ ফেব্রুয়ারি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা প্রার্থনা করল নির্ভয়ার ধর্ষক খুনি পবন গুপ্তা (Pawan Gupta)। এদিন সুপ্রিম কোর্টে আবেদনও করেছে সে। পবন গুপ্ত ছাড়াও আরও তিন আসামী হল অক্ষয় কুমার, মুকেশ সিং বিনয় কুমার শর্মা। গত জিসেম্বর থেকে নির্ভয়া খুন ও ধর্ষণ মামলার শুনানি চলছে ঘন ঘন। কখনও তিসহাজারি আদালত তো কখনও দিল্লি হাইকোর্ট। আবার কখনও সুপ্রিম কোর্ট। ফাঁসি আটকাতে চার ধর্ষক খুনির আইনজীবীরা আদাজল খেয়ে লেগে পড়ছে। একবার বয়স কম ফাঁসি রদ করো। একবার প্রাণভিক্ষা, একবার মক্কেল মানসিকভাবে অসুস্থ।

গত সপ্তাহে তো বিনয় কুমার শর্মার আইনজীবীর দাবি ছিল, তার প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ করে মন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন। দুবার ফাঁসির সাজা বলবৎ হয়েও শেষপর্যন্ত স্থগিত হয়ে গিয়েছে। এজন্য নির্ভয়ার মা আশাদেবী বিচার ব্যবস্থার উপরে আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন। তবুও আশায় বুক বেঁধেছেন ৩ তারিখের জন্য। আর সেই তিন তারিখ আসার আগে নয়া খেল খেলতে শুরু করল পবন গুপ্তা। আরও পড়ুন-Coronavirus Scare: করোনাভাইরাস কবলিত দেশে যাবেন না, নতুন ট্রাভেল অ্যাডভাইজরি আনল স্বাস্থ্য মন্ত্রক

২০১২ সালে বছর তেইশের প্যারামেডিক্যালের ছাত্রীকে দিল্লিতে চলন্ত বাসের মধ্যে গণধর্ষণের পর নারকীয়ভাবে অত্যাচর চালায় ছয় পাষণ্ড। এরপর হাসপাতালে জীবন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে হেরে যান নির্ভয়া। ছয় ধর্ষক খুনির মধ্যে একজন নাবালক ছিল। পাঁচজনরে ঠিকানা হয় তিহাড় জেলে। সেখানে আবার একজন আত্মঘাতী হয়। আর বাকিদের ফাঁসির সাজা নিয়ে দিনের পর দিন নাটক চলছে।