Farm Bills: রাষ্ট্রপতিকে কৃষি বিলে সই না করার স্মারকলিপি দিয়ে দেখা করার জন্য সময় চাইলেন বিরোধীরা
রামনাথ কোবিন্দ (Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ২১ সেপ্টেম্বর: রবিবার দু'টি কৃষি বিল (Farm Bill) নিয়ে বিরোধীদের তুলকালাম হয় সংসদে (Parliament)। এডিএমকে, জেডিইউ ও ওয়াইএসআর কংগ্রেস ছাড়া কৃষি সংস্কারের জোড়া বিলে আর কেউই বিজেপির সমর্থনে ছিল না। আজ রাজ্যসভায় ধুন্ধুমারের প্রেক্ষিতে 'অপ্রীতিকর আচরণ'-র ব্যাখ্যা দিয়ে ৮ জন সাংসদকে একসপ্তাহের জন্য সংসদ থেকে বরখাস্ত করেন সংসদের চেয়ারম্যান ভেঙ্কাইয়াহ নাইডু।

কয়েকটি বিরোধী দল রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে (Ramnath Kovind) চিঠি লিখে তাঁর হস্তক্ষেপ চাইল। যে কায়দায় সরকারপক্ষ ‘নিজের এজেন্ডা অনুমোদন করিয়ে নিল’, তার তীব্র নিন্দা করে রাষ্ট্রপতিকে তারা আবেদন করেছে, তিনি যেন বিল দুটিতে সই না করেন। কংগ্রেস, বাম দল, এনসিপি, ডিএমকে, এসপি, তৃণমূল ও আরজেডি রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো স্মারকলিপিতে তাঁর হস্তক্ষেপ দাবি করেছে। তিনি বিলে সই করলেই তা আইনে পরিণত হবে। সরকারের দাবি, কৃষিক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় সংস্কার ঘটাতেই বিল দুটি আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন, কৃষি বিল প্রতিবাদের মাঝেই বাড়ল গমের এমএসপি, প্রতি কুইন্টাল ৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হল ১,৯৭৫ টাকা

গতকাল সংসদের ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ সিংয়ের (Harivansh Singh) বিরুদ্ধে অনাস্থাপ্রস্তাব (No Confidence Motion) আনে রাজ্যসভার বিরোধী দলের সাংসদরা। জনতা দল ইউনাইটেডের এই নেতা কিছুদিন আগেই সংসদের ডেপুটি চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত হন। কৃষি বিল রাজ্যসভায় পাস হয়ে যাওয়ার পরই বিরোধী সাংসদরা অনাস্থাপ্রস্তাব পেশ করেন।

বিরোধী সংসদ সদস্যদের বিক্ষোভের মধ্যেই ধ্বনি ভোটের ওপর ভিত্তি করে দুটি কৃষি বিল (Firm Bill) রাজ্যসভায় (Rajya Sabha) পাস হয়ে যায়। সেখানে প্রবল বিরোধিতার মুখে পড়ে মোদি সরকার। ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখায় বিরোধীরা। দেওয়া হয় স্লোগান। উপরাষ্ট্রপতির সামনে কৃষি বিলের কপি ছেঁড়েন বিরোধীরা। অবশেষে দুপুরে অধিবেশন শেষের আগে রাজ্যসভায় ধ্বনিভোটে পাস হয়ে যায় কৃষি বিল।