UP Mid-day Meal:নুন-রুটির পর এবার মিড-ডে মিলে দুধ মেশানো জল খাচ্ছে পড়ুয়ারা, যোগীর রাজ্যে ফের শোরগোল
দুধ মেশানো জল মিড-ডে মিলে(Photo Credit: ANI)

লখনউ, ২৯ নভেম্বর: মিড-ডে মিলে নুন রুটি খাচ্ছে পড়ুয়ার দল। উত্তরপ্রদেশের মির্জাপুরের একটি স্কুলের এই ঘটনা এখনও অতীত হয়ে উঠতে পারেনি। সুযোগ পেলেই বিরোধীরা নুন রুটির প্রসঙ্গ তুলে যোগী সরকারকে খোঁচা দিতে ছাড়ে না। এবার একেবারে ‘বোঝার উপরে শাকের আঁটি’ হিসেবে এসে পড়ল জল মেশানো দুধ (diluted milk)। হ্যাঁ মিড-ডে মিলে পড়ুয়াদের জল মেশানো দুধ খাওয়াচ্ছে স্কুল। এমন অভিযোগ শুধু ওঠেনি, রীতিমতো ছবি প্রকাশ্যে এল। এর জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তরপ্রদেশের শোনভদ্র এলাকার (Sonbhadra district) এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। সংশ্লিষ্ট স্কুলটি উপজাতি অধ্যুষিত এলাকায়। সেখানেই কিনা দুপুরবেলা স্কুলের মিড-ডে মিলে পড়ুয়ার খাচ্ছে জল মেশানো দুধ ও তেহারি।

জানা গিয়েছে, ভিডিওটি ভাইরাল হতেই বিপাকে পড়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। একেবারে এক বালতি জলে মেশানো হল এক লিটার দুধ। সেই দুধ, থুড়ি দুধ মেশানো জল খেতে দেওয়া হল ৮৫ জন পড়ুয়াকে। এমন তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই প্রমাদ গুনেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। সেখানকার সহকারী স্কুল পরিদর্শক বিতর্ক এড়াতে সাততাড়াতাড়ি জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। সাফাই দিতে গিয়ে তিনি বলেন, স্কুলের তরফে তাঁকে নাকি আগেই জানানো হয়েছিল, মিড-ডে মিলের জন্য নাকি পর্যাপ্ত দুধ মিলছে না। তাই জল মিশিয়ে দুধের পরিমাণ বাড়ানো হচ্ছে। তবে দুধের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই জল মেশানো হচ্ছে। যদিও তিনি নাকি এই তথ্য জানার পর স্কুলকে বলেছিলেন, দুধ জোগাড়ের চেষ্টা করুন। এরমাঝেই কখন বিষয়টি জানাজানি হয়েছে। আর ছবি তুলে ভাইরাল করে দেওয়া হয়েছে। আরও পড়ুন-রুটি নুন খাচ্ছে পড়ুয়ারা, উত্তর প্রদেশের স্কুলের মিড-ডে মিলের মেনু ভাইরাল

উল্লেখ্য এর আগে উত্তর প্রদেশের মির্যাপুর জেলার এক স্কুল। মিড-ডে মিলের মেনুতে নুন দিয়ে রুটি খাচ্ছে পড়ুয়ারা। মিড-ডে মিলের খাবার নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ অনেকদিন থেকেই উঠছিল, এবার হাতেনাতে পাওয়া গেল প্রমাণ। একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে ছাত্রীরা মিড-ডে মিলে নুনের সঙ্গে রুটি খাচ্ছে। ভিডিও ভাইরাল হতেই সমালোচনা শুরু হয়েছে। গাফিলতির অভিযোগে ইতিমধ্যেই ওই স্কুলের টিচার ইন চার্জ ও এলাকার পঞ্চায়েতের সুপার ভাইজারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এই ভিডিও প্রকাশ্যে আনায় সাংবাদিককে হুমকিও প্রাণনাশের হুমকিও শুনতে হয়েছে বলে অভিযোগ।