Uttar Pradesh: ভুল ঠিকানা দিয়ে নিখোঁজ ১৭ জন করোনা রোগী, যোগীর রাজ্যে চাঞ্চল্য
প্রতীকী ছবি(Photo Credits: File Image)

লখনউ, ১০ আগস্ট: যোগী আদিত্যনাথের খাস তালুক থেকে নিখোঁজ ১৭ জন করোনা রোগী (Covid19)৷ ঘটনাটি গোরক্ষপুরের কুশীনগর জেলার৷ সেখানকার হাতা, রামকোলা ও পাদরাউনা ব্লকের ২০ জন বাসিন্দার করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে৷ সরকারি কেন্দ্র থেকেই তাঁরা RT-PCR টেস্ট করিয়েছিলেন৷ তবে রিপোর্ট আসার পর থেকে এর মধ্যে ১৭জনকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ টেস্ট করাতে এসে পরিচিতি পত্রে যে ঠিকান তাঁরা দিয়েছিলেন সেখানে খোঁজ করে দেখা গেছে তা ভুল৷ অর্থাৎ আক্রান্তরা সরকারি কেন্দ্রে ভুল তথ্য দিয়ে করোনা টেস্ট করান৷ সরকারি বিধি অনুসারে পজিটিভ রোগীদের নমুনা সংরক্ষণ করতে হবে৷ কিন্তু সংশ্লিষ্ট সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীরা সেই নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন৷ সমস্ত নমুনা নষ্ট করে ফেলা হয়েছে৷

এই প্রসঙ্গে কুশীনগরের মুখ্য স্বাস্থ্য অধিকর্তা সুরেশ পাতারিয়া বলেছেন, কর্তব্যে গাফিলতির প্রমাণ পেয়ে ওই গ্রামের ল্যাবরেটরির ১১ জন কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷ এই তালিকায় গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মী থেকে শুরু করে ল্যাবরেটরির কর্মী, গ্রাম নজরদারি কমিটির সদস্যও রয়েছেন৷ ইতিমধ্যেই আক্রান্তদের খোঁজে একটি দল কাজ শুরু করেছে৷ একই সঙ্গে গ্রামের বাসিন্দাদের করোনা টেস্ট্রেও বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷ এদিকে খোঁজ খবর করতেই জানা গেছে, নিখোঁজ ১৭ জনের মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে৷ বাকি তিন করোনা আক্রান্তের নমুনা ফের সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য গোরক্ষপুরের বাবা রাঘবদাস মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে৷ অভ্যন্তরীণ তদন্তে দেখা গেছে নমুনা সংগ্রহকারী স্বাস্থ্যকর্মী নিজে আক্রান্তদের ভুল ঠিকানা নথিবদ্ধ করেছিলেন৷ আরও পড়ুন-Coronavirus Cases In India: ১৪৭ দিনে এই প্রথম, দেশে নতুন করোনা রোগী ৩০ হাজারের নিচে

স্বাস্থ্য দপ্তরের নথিতে যে ঠিকানা ছিল সেখানে জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে প্রতিনিধি দল গিয়েও আক্রান্তদের কোনও সন্ধান মেলেনি৷ এক্ষেত্রে শুধু ওই তিন ব্লকে নিযুক্ত স্বাস্থ্যকর্মীরে গাফিলতি প্রকাশ্যে এসেছে তাই নয়, গ্রামের নজরদারি কমিটির সদস্যরাও যে কর্তব্যে অবহেলা করেছেন, তা স্পষ্ট৷ আক্রান্তদের খোঁজে সতর্কতা জারি হয়েছে৷ গ্রামে গ্রামে সংক্রামিতদের চিহ্নিত করে টিম পাঠানো হয়েছে৷   এই তথ্য দিয়েছেন গোরক্ষপুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সুধাকর পাণ্ডে৷