Uttar Pradesh: চিনি ছাড়া চা দেওয়ায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে খুন স্বামীর, হাড়হিম করা দৃশ্য দেখল ছেলেমেয়েরা
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: ANI)

লখিমপুর, ২৩ জুন: চায়ে চিনি দেননি, এই অপরাধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নৃশংসভাবে খুন করল স্বামী। সোমবার চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি উত্তর প্রদেশের (Uttar Pradesh) লখিমপুরের বারবার এলাকায়। অভিযুক্তের নাম বাবলু কুমার (৪০)। মৃতার নাম রেণু(৩৬)। সোমবার ওই গৃহবধূ স্বামীকে চিনি ছাড়াই চা খেতে দেন। সেই চা মুখে দিয়েই বাবলু কুমারের মেজাজ সপ্তমে চড়ে যায়। প্রথমে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে বেধড়ক মারধরের পর তাঁর গলা কেটে দেয় সে। বাবার চিৎকারে ততক্ষণে ওই দম্পতির তিন সন্তানের ঘুম ভেঙেছে। সবাই রান্নাঘরে পৌঁছে দেখতে পায় রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে ছটফট করছেন তাদের মা। ১২ বছর আগে বাবলু কুমার ও রেনুর বিয়ে হয়। তাদের তিন সন্তান রয়েছে।

এই ঘটনার পরেই মৃতা গৃহবধূর বাবা বদ্রী প্রসাদের অভিযোগের ভিত্তিতে খুনে বাবলু কুমারের বিরুদ্ধে পুলিশ ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় মামলা রুজু করেছে। আরও পড়ুন-Bihar Elections 2020: আসন্ন বিহার বিধানসভা নির্বাচনে করোনা আক্রান্তদের ভোট পোস্টাল ব্যালটে, জানালো নির্বাচন কমিশন

স্থানীয় থানার তরফে পুলিশকর্তা রাকেশ কুমার জানিয়েছেন, চায়ে চিনা না থাকাতেই ওই দম্পতির মধ্যে বচসা শুরু হয়। বাবলু কুমার স্ত্রী রেণুদেবীকে মারধরের পর ছুরি দিয়ে গলা কেটে দেয়। স্ত্রী খুনের পর থেকেই সে ফেরার। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত ছুরিও উদ্ধার হয়েছে। মাকে খুন করেছে বাবা, তা ছেলেমেয়েরাই দেখেছে। তাই তাদের বয়ান রেকর্ড করা হবে।