Madhya Pradesh: দাদাকে বেশি ভালবাসে, এই সন্দেহে মায়ের গলা কেটে খুনের পর ভিডিও করল গুণধর ছেলে
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: ANI)

ভোপাল, ৩০ জুলাই:  দাদাকে বেশি ভালবাসে মা, এই অভিযোগে শেষপর্যন্ত গলা কেটে মাকে খুল করল ছেলে। তারপর গোটা ঘটনাটি মোবাইলে ভিডিও করে রাখল। ইতিমধ্যেই ঘাতক ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) রেওয়া জেলার খাটিকা গ্রামে। মৃত মহিলার নাম সাবিত্রী পাণ্ডে(৪৪)। রবিবার তাঁর স্বামী থানায় অভিযোগ জানান যে, স্ত্রীকে কেউ ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন করে জঙ্গলে দেহ পুঁতে দিয়েছে। অভিযোগ পেয়েই তদন্তে নামে পুলিশে। জঙ্গল থেকে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। তদন্তেই জানা যায়, সাবিত্রীদেবীর ছোট ছেলে  ধীরেন্দ্র(২৪) একেবারেই সুবিধের নয়। তুচ্ছ কারণেই কখনও স্ত্রী, কখনও বাবা বা মায়ের সঙ্গে সে ঝামেলা শুরু করে দেয়। আরও পড়ুন-Somen Mitra Passes Away: বাংলার রাজনৈতিক মঞ্চে ইন্দ্রপতন, প্রয়াত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র

পুলিশ জানিয়েছে, ধীরেন্দ্র বেকার। সে মায়ের সঙ্গে যখন তখন গোলমাল বাধাতো। কেননা তার ধারণা দাদাকে মা বেশি ভালবাসে, দাদার খেয়াল রাখে। যেহেতু দাদা কাজ করে। এসব কারণে মাকে রীতিমতো ঘৃণা করত সে। এনিয়ে স্ত্রীকেও মারধর করতে ছাড়েনি ধীরেন্দ্র। কিছুদিন আগে অশান্তির সময় সাবিত্রীদেবীকে খুনের হুমকিও দেয় এই গুণধর ছেলে। পরিবারের প্রত্যেককে জেরার পর ধীরেন্দ্রর উপরেই পুলিশের সন্দেহ যায়। তাই তাকে থানায় তুলে নিয়ে আসেন তদন্তকারী অফিসাররা। থানায় ক্রমাগত জেরার মুখে ভেঙে পড়ে ধীরেন্দ্র। জানায় মায়ের গলা কেটে খুন করেছে সে, এবং মোবাইলে রক্তাক্ত মৃতদেহের ভিডিও করে রেখেছে। এরপরেই মাকে খুনের অপরাধে ধীরেন্দ্রকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে।