Shashi Tharoor: দেশের বিকৃত মানচিত্র টুইটারে পোস্ট করে ট্রোলড কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর
শশী থারুরের পোস্ট করা ছবি (Photo: ANI)

নতুন দিল্লি, ২১ ডিসেম্বর: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (Citizenship Amendment Act) ও NRC-র বিরোধিতায় টুইটারে ভারতের বিকৃত ম্যাপ (Distorted map of India) পোস্ট করে ট্রোলড (Trolled) হলেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর (Shashi Tharoor)। সমালোচনার মুখে পড়ে পোস্ট ডিলিট করে দেন তিনি তিরুবনন্তপুরমের সাংসদ। “ভারত বাচাঁও” লেখা একটি পোস্টারের ছবি পোস্ট করেন থারুর। সেখানে ভারতের মানচিত্র থেকে উত্তর-পূর্বের কয়েকটি রাজ্য ছিল না। কোঝিকোড়ে CAA বিরোধী মিছিলের জন্য বানানো হয়েছিল ওই পোস্টারগুলি। সেটারই ছবি টুইটারে শশী থারুর পোস্ট করেন এদিন। সেখানেই বিকৃত মানচিত্রের ছবির জন্য শশী থারুর সমালোচনার মুখে পড়েন। সোশাল মিডিয়ায় তিনি ট্রোলড হন।

এক টুইটার ব্যবহারকারীর কথায়, এই ধরনের ভুল প্রথমবার নয়। একমাত্র কংগ্রেসের জন্যই কাশ্মীরের অংশ কিছুটা হলেও পাকিস্তানের দখলে রয়েছে। আরও পড়ুন:  TMC To Visit Lucknow: CAA নিয়ে বিজেপিকে চাপে রাখার কৌশল, লখনউ যাচ্ছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল

এরপর আবার টুইটারে তিনি একটি অন্য পোস্টারের ছবি পোস্ট করেন। তাতে ভারতের মানচিত্রের কোন ছবি ছিল না। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপি ধর্মের ভিত্তিতে দেশকে ভাগ করছে। সেই অভিযোগেই শুরু থেকেই বিরোধীতা করে আসছে কংগ্রেস। এদিন সমালোচনা নিয়ে শশী থারুরকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, “আমি ওই মানচিত্রের মাধ্যমে দেশের সীমানা বোঝাতে চাইনি। দেশের মানুষদের বোঝাতে চেয়েছি। বিজেপির ট্রোল নিয়ে বাড়তি গুরুত্ব আমি দিতে চাইনা।”

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (Citizenship Amendment Act) প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ চলছে। অসম, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, কর্নাটকে হিংসা ছড়িয়েছে। বিক্ষোভ, অশান্তি, হিংসায় অন্তত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। আজও দিল্লিসহ দেশের বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সামিল সাধারণ মানুষ। এর মধ্যেই নাগরিকত্ব সংশোধন আইনকে সমর্থন জানালে দেশের এক হাজারের বেশি শিক্ষাবিদ (Academicians)। শনিবার দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক হাজারেরও বেশি শিক্ষাবিদ নাগরিকত্ব সংশোধন আইনের সমর্থনে এক বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। বিবৃতিতে তাঁরা সংসদকে (Parliament) ধন্যবাদ জানিয়েছন। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, "ভুলে যাওয়া সংখ্যালঘুদের পক্ষে দাঁড়াতে এবং ভারতের সভ্যতাগত আত্মিক বৈশিষ্ট্য তুলে ধরতে এবং ধর্মীয় নিপীড়ন থেকে পালিয়ে আসা ব্যক্তিদের জন্য আশ্রয় দেওয়ার জন্য সংসদকে অভিনন্দন।"