Chennai Shocker: রাতবিরেতে ফোন এসএমএসে বাধা, ধোসার সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে স্বামীকে খুন স্ত্রীর
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: Pixabay)

চেন্নাই, ১৬ অক্টোবর: ধোসার (dosa) মধ্যে ঘুমের ওষুধ (sleeping pills) মিশিয়ে স্বামীকে খাইয়ে দেওয়ার পর গলা টিপে (strangled) খুনের অভিযোগ। এই অভিযোগে ইতিমধ্যেই মৃতের স্ত্রী ও তার প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এভাবে শুধু স্বামীই নন, তাঁর বন্ধুকেও খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। ইতিমধ্যেই ওই মহিলা ও প্রেমিক প্রবরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যদিও অভিযুক্তের দাবি, তাঁর স্বামী প্রচুর মদ খেতেন। ঘটনার দিনও বেশি মদ খেয়ে ফেলাতেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের তদন্তের রিপোর্ট দেখেই পুলিশ বুঝতে পারে মহিলা মিথ্যে বলছেন। কেননা রিপোর্ট বলছে, ওই ব্যক্তিকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। খুনের আগে তাঁকে কড়া ডোজের ঘুমের ওষুধও খাওয়ানো হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৪ সালে তাঁদের বিয়ে হয়। ওই দম্পতির একটি বছর চারেকের পুত্র সন্তানও রয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই ওই দম্পতির মধ্যে এক মনোমালিন্য চলছিল। সম্প্রতি একটি ওষুধের দোকানে কর্মী হিসেবে যোগ দেন ওই গৃহবধূ। এই বিষয়টি স্বামীর ভাল লাগেনি। বিভিন্ন লোকজনকে রাত বিরেতে মেসেজ পাঠানো থেকে শুরু করে গভীর রাতে অচেনা লোকদের সহ্গে কথা বলা। এসব দিন দিন বেড়ে যাওয়াতে মাঝেমধ্যেই স্ত্রীকে ধমক দিতেন স্বামী। এভাবে স্বাধীন জীবন যাপনে বাধার সৃষ্টি করার কারণে স্বামীকে নিজের জীবন থেকে চিরতরে মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় অভিযুক্ত মহিলা। সেই মতো প্রেমিকের সহ্গে পরিকল্পনা করে খুনে ছক কষা হয়ে যায়। আরও পড়ুন-খাদির তৈরি জাতীয় পতাকার বিক্রি বাড়াতে চিন থেকে পতাকা আমদানি নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র

ঘটনার দিন তাড়াতড়ি কাজ থেকে ফিরে আসে ওই গৃহবধূ। স্বামী তখনও বাড়ি ফেরেননি তাঁর জন্য় ধোসা তৈরির প্রস্তুতি নেয় সে। ব্যাটার বানিয়ে তাতে কড়া ডোজের ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দেয়। স্বামী বাড়ি ফইরতেই ধোসা বানিয়ে পরিবেশন করে স্ত্রী। স্ত্রীর এই পরিবর্তনে সন্দেহ করার বদলে বেশ খুশিই হয়েছিলেন ওই যুবক। বন্ধুকে ফোন করে ডেকে ধোসা খাওয়ান। তারপর দুজনে ঘুমে ঢলে পড়লে প্রেমিককে খবর দেয় অভিযুক্ত গৃহবধূ। এরপর পরিকল্পনা মাফিক দুজনে মিলে শ্বাসরোধ করে স্বামীকে খুন করে।