Andhra Pradesh: নাবালিকা ছাত্রীকে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ে, গ্রেফতার দুই সন্তানের বাবা স্কুল শিক্ষক
প্রতীকী ছবি

দুই কন্যা সন্তানের বাবা পেশায় স্কুল শিক্ষক এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) তাদেরু জেলা নিবাসী ৪৬ বছরের ওই স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, নিজের স্কুলের নাবালিকা ছাত্রীকে বিবাহ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ  ডিপফেকে রাশ টানতে এবার নজরদারি চালাবে বিশেষ অফিসার, ঘোষণা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

ইয়ান্দাগানি জেলা পরিষদ উচ্চ বিদ্যালয়ের হিন্দি ভাষার শিক্ষক কে সোমরাজুকে বৃহস্পতিবার গ্রেফাতার করেছে পুলিশ। ১৫ বছরের ছাত্রীকে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে তাঁকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। পুলিশ সূত্রে খবর, সাত বছর আগে স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় সোমরাজুর। দুই কন্যা সন্তান রয়েছে তাঁর। গত চার মাস আগে, তরুণীকে তাঁর বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়েছিলেন সোমরাজু। নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে রাখেন ছাত্রীকে। এরপর ১৯ নভেম্বর দশম শ্রেণির ছাত্রীকে বিবাহ করেন ৪৬ বছরের শিক্ষক।

শিক্ষকের বাড়ি থেকে একদিন কাউক কিছু না জানিয়ে পালিয়ে আসে ওই ছাত্রী। ইয়ান্দাগানি গ্রামে নিজের বাড়িতে ফিরে এসে পরিবারকে জানায়, শিক্ষকের ভালবাসার ফাঁদে পা দিয়ে সে এই কাজ করেছে। এরপর বাবার সঙ্গে থানার দারস্ত হয় সে। স্কুলের হিন্দি শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। দণ্ডবিধির অধীনে ৩৭৬, ৩৪২ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে  ইয়ান্দাগানি জেলা পরিষদ উচ্চ বিদ্যালয়ের হিন্দি ভাষার শিক্ষক কে সোমরাজুর বিরুদ্ধে। এছাড়া পকসো আইন এবং বাল্য বিবাহ আইনের অধীনেও মামলা দায়ের হয়েছে।