JNU Violence: সাতসকালে গেটওয়ে অফ ইন্ডিয়া থেকে জেএনইউ হামলার প্রতিবাদী আন্দোলনকারীদের সরিয়ে দিল মুম্বই পুলিশ
আন্দোলনকারীদের সরিয়ে দিল মুম্বই পুলিশ (Photo Credits: ANI)

মুম্বই, ৭ জানুয়ারি: জেএনইউ হামলার (JNU Violence) প্রতিবাদে বিক্ষোভ চলছে দেশজুড়ে। পথে নেমেছে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলি। মুম্বইয়ের গেটওয়ে অফ ইন্ডিয়ায় (Gateway Of India) অনড় আন্দোলনে বসে মুম্বই আইআইটিসহ (Mumbai IIT) অন্যান্য কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। সাতসকালে মুম্বই পুলিশ (Mumbai Police) এসে সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেয়। এরপর আন্দোলনকারীরা আজাদ ময়দানে (Azad Maidan) অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে। আন্দোলনকারীরা প্ল্যাকার্ড হাতে গান গেয়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। রাস্তা বন্ধ করে চলে বিক্ষোভ।

ANI-র খবর অনুযায়ী, মুম্বই পুলিশের ডিসিপি সংগ্ৰামসিং নিশানদার বলেন, বিক্ষোভকারীদের জন্য সাধারণ মানুষ ও পর্যটকদের অসুবিধা হচ্ছিল। আমরা তাদের বারবার সেই স্থান থেকে উঠে যেতে বলি, কিন্তু তারা তা করেননি। তাই তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন তারা আজাদ ময়দানে অবস্থান বিক্ষোভ করছে।" জেএনইউ হামলার প্রতিবাদে মুম্বইয়ের হুতাত্মা চকে প্রায় কয়েক' শ মানুষ বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। অন্যদিকে কার্টার রোডে উপস্থিত ছিলেন অনুরাগ কাশ্যপ, অনুভব সিনহা, তাপসি পান্নু, জোয়া আখতার, দিয়া মির্জা, রাহুল বোস ও অন্যান্য বলিউড তারকারা।

আরও পড়ুন, 'জেএনইউ-তে কী হয়েছিল জবাব দিতে হবে মোদি সরকারকে' প্রবল ক্ষোভের মুখে প্রশ্নবাণ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জির

রবিবার মুখে কাপড় বেঁধে প্রায় ৫০ জনের একটি দল ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। তাদের হাতে ছিল ব্যাট, লাঠি। আন্দোলনকারীদের সভা চলাকালীন ওই দুষ্কৃতী দল ক্যাম্পাসে ঢুকে হামলা চালায়। পড়ুয়াদের মারধরের পাশাপাশি হস্টেলের ভিতরে ঢুকেও ভাঙচুর চালানো হয়। ধারালো কোনও কিছু দিয়ে আঘাত করা হয় এসএফআইয়ের সভাপতি ঐশী ঘোষের মাথায়। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আসতেই ঘটনার নিন্দায় ফেটে পড়ে দেশবাসী। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ অবশ্য জানিয়েছেন কারা এইদিন ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেছিল তা খতিয়ে দেখা হবে।