Rape: নাবালকের ধর্ষণ গৃহবধূকে, নাবালিকা পিসতুতো বোনকে ধর্ষণ দাদার
ছবি সংগৃহীত

ভোপাল, ২১ জুন: মধ্যপ্রদেশে ২৫ বছরের এক বিবাহিত মহিলাকে ধর্ষণের (Rape) অভিযোগ নাবালকের বিরুদ্ধে। এক বালককে তাঁকে জোর করে টানতে টানতে ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে বলে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছে সেই গৃহবধু। সেই মহিলার স্বামী প্রতিবন্ধী, ক্ষেতে কাজ করে। তাদের ছোট্ট একটা কন্যা সন্তান আছে। মহিলার স্বামী আত্মীয়র বাড়িতে কোনও এক কাজে যান। সেই সুযোগে ছেলেটি ফাঁকা ঘর থেকে টানতে টানতে সেই মহিলাকে নিয়ে নিজের ঘরে নিয়ে যায়। চিতকার করার কোনও সুযোগই সে দেয়নি বলে মহিলার অভিযোগ। ধর্ষণের পর কাউকে বললে ছেলেটি মহিলাকে খুনের হুমকিও দেয় বলে অভিযোগ। আরও পড়ুন: বিয়ের কার্ডে নাম নেই, সেই বিবাদে পরিবারের চারজনকে ছুরিকাঘাত

স্বামী বাড়ি ফেরার পর ২৫ বছরের সেই মহিলা ছেলেটির কুকর্মের কথা খুলে বলেন। এরপরই তাঁরা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। ছেলেটির আসল বয়স কত তা জানাতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ছেলেটির পরিবারের দাবি, তার বয়স এখনও ১৮ হয়নি।

এদিকে, গুজরাটের রাজকোটে ২৫ বছরের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাঁর ১৭ বছর বয়সী পিসতুতো বোনকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। দাদার হাতে ক্রমাগত ধর্ষিত হওয়ার ফলে সেই নাবালিকা গর্ভবতী হয়ে পড়ে বলে খবর। পিসতুতো বোনের সঙ্গে একটি ছেলের ঘনিষ্ঠতা দেখে সেই সম্পর্কের কথা বাড়িতে জানিয়ে দেবে বলে, তাকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করে গিয়েছে বলে সেই নাবালিকার অভিযোগ। ধর্ষণের কথা কাউকে জানালেই সেই ওই ছেলেটির সঙ্গে সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেবে বলে নিজের পিসতুতো বোনকে ভয় দেখিয়ে ছিল। গর্ভবতী হওয়ার পর সে বাধ্য হয়েই ধর্ষণের কথা জানায়।