Independence Day 2021 Live Updates: ২১ শতকে ভারতকে স্বপ্নপূরণ থেকে কেউ রুখতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Photo: ANI)

নতুন দিল্লি, ১৫ অগাস্ট: আজ ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস। করোনা আবহে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে দিনটি। সকাল সাড়ে ৭টায় লালকেল্লায় পতাকা উত্তোলনের পর ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জয়ী নীরজ চোপড়া-সহ ৩২ জন ক্রীড়াবিদ। এই প্রথমবার স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লার অনুষ্ঠানে পুষ্পবৃষ্টি করবে বায়ুসেনার হেলিকপ্টার।

লাইভ আপডেট:

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ:

  • আমি ভবিষ্যদ্বাণী করতে পারি না। তবে কর্মফলে বিশ্বাসী। দেশের যুসমাজ, মেয়ে, কৃষকের উপর আমার আস্থা আছে। ২০৪৭ সালে স্বাধীনতার ১০০ তম বর্ষে যেই প্রধানমন্ত্রী হোন না কেন, উনি আজকে নেওয়া সিদ্ধান্তেরই সিদ্ধিলাভ করবেন। ২১ শতকে ভারতকে স্বপ্নপূরণ থেকে কেউ রুখতে পারবে না।
  • আমাদের প্রতিরক্ষা বাহিনীকে সতর্ক থাকতে হবে। দেশকে আত্মনির্ভর করে তুলতে সকলকে উদ্যোগী হতে হবে। দেশবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, সেনার হাত মজবুত করতে চেষ্টায় কোনও ত্রুটি রাখব না।
  • সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে শত্রুদের নিজেদের ক্ষমতা বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে যে ভারত কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে পারে।
  • জলবায়ু পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ আমি জাতীয় হাইড্রোজেন মিশন ঘোষণা করছি। গ্রিন হাইড্রোজেন উৎপাদন ও রফতানির জন্য আমাদের ভারতকে একটি হাব হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।
  • বছরের পর বছর ধরে জমে থাকা সমস্যার সমাধান করেছে আমাদের সরকার। ৩৭০ ধারা বিলোপ হোক, জিএসটি হোক, রাম জন্মভূমি বিবাদের শান্তিপূর্ণ সমাধান, বছরের পর বছর ধরে চলে আসা সমস্যার সমাধান করেছি আমরা।
  • আজ, আমাদের স্বাধীনতার ১০০ বছর পূর্ণ করার আগে ভারতকে এনার্জিতে স্বাধীন করার অঙ্গীকার করতে হবে। ভারতীয় রেলের ১০০% বিদ্যুতায়নের কাজ চলছে।
  • সরকার ঠিক করেছে দেশের সমস্ত সৈনিক স্কুলগুলিকে মেয়েদের জন্যও খুলে দেওয়া হবে। মেয়েরাও সেখানে পড়াশোনা করতে পারবেন।
  • গত ৭ বছরে দেশের মানুষকে অনাবশ্যক আইনি জাল থেকে মুক্তি দেওয়ার চেষ্টা চলছে। করোনা কালেও সরকার ১৫ হাজারের বেশি নীতি নিয়মের বাঁধন আলগা করে দিয়েছে।মানচিত্র, সংবাদমাধ্যম, তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে অনেক বিধিনিয়ম আলগা করে দিয়েছি আমরা। আইনি ফাঁস থেকে মানুষকে মুক্তি দেওয়া প্রয়োজন। কর ব্যবস্থাকেও সহজ করা হয়েছে।
  • বড় পরিবর্তন, বড় সংস্কার আনতে রাজনৈতিক সদিচ্ছার প্রয়োজন। আজ, বিশ্ব দেখতে পাচ্ছে যে ভারতে রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাব নেই। সংস্কার আনতে ভাল ও স্মার্ট গভর্নেন্স দরকার। ভারত কী ভাবে শাসনের নতুন অধ্যায় লিখছে তার সাক্ষী বিশ্ব।
  • ভারতকে উৎপাদন এবং রফতানি বাড়াতে হবে। বর্তমানে ভারত নিজের যুদ্ধবিমান তৈরি করছে, সাবমেরিন তৈরি করছে, গগনযান মহাকাশে ভারতের তেরঙ্গা উত্তোলন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। দেশীয় উৎপাদনের সামর্থ্য বাড়াতে আরও উৎসাহিত করছে আমাদের।
  • ভারতের রেল পরিবহণ আগের চেয়ে আধুনিক হয়েছে।
  • অমৃত মহোৎসবের ৭৫ সপ্তাহে ৭৫ বন্দে ভারত ট্রেন দেশকে সংযুক্ত করবে।
  • যে গতিতে বিমানবন্দর গড়ে উঠছে, তা অভূতপূর্ব। প্রধানমন্ত্রী গতিশক্তি ন্যাশনাল প্লান্ট খোলা হবে। ১০০ লক্ষ কোটির এই প্রকল্প যুবসমাজের জন্য নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করবে। গতিশক্তি এমন একটি পরিকাঠামোগত প্রকল্প, যা আমাদের অর্থনীতিকে পথ দেখাবে। দেশের পরিবহণ ব্যবস্থাকে সংযুক্ত করবে গতিশক্তি।
  • পরবর্তী প্রজন্মের পরিকাঠামো, বিশ্বমানের উৎপাদন, নতুনত্ব এবং নতুন যুগের প্রযুক্তির জন্য আমাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে।
  • অতীতে কৃষি সংক্রান্ত নীতিতে ছোট কৃষকদের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। এখন তাঁদের কথা ভেবে কৃষি আইনে সংশোধন করা হচ্ছে। ন্যূনতম মূল্য বাড়ানো হোক, ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হোক, ছোট কৃষকদের হাত মজবুত করতে কাজ করছে আমাদের সরকার। তাঁদের খরচের কথা মাথায় রেখে পিএম কিসাম সম্মান নিধি প্রকল্প আনা হয়েছে। দেড় লক্ষ কোটির বেশি টাকা কৃষকদের অ্যাকাউন্টে জমা করা হয়েছে। ছোট কৃষকদের নিয়েই আগামী দিনে গর্ব বোধ করবে গোটা দেশ।
  • আজ আমরা দেখছি আমাদের গ্রামগুলি দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে। গত কয়েক বছরে রাস্তা ও বিদ্যুতের মতো সুবিধা গ্রামে পৌঁছেছে। আজ, অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক গ্রামে তথ্য সরবরাহ করছে, ইন্টারনেট সেখানে পৌঁছে যাচ্ছে। ডিজিটাল উদ্যোক্তারা গ্রামেও প্রস্তুত হচ্ছে।
  • একদিকে, লাদাখ আধুনিক অবকাঠামো তৈরির সাক্ষী থাকছে, অন্যদিকে সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটি লাদাখকে উচ্চশিক্ষার কেন্দ্র বানাবে।
  • জম্মু -কাশ্মীরে সীমানা কমিশন গঠন করা হয়েছে এবং ভবিষ্যতে বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে
  • উত্তর-পূর্বের সমস্ত রাজ্যের রাজধানীগুলিকে রেলপথে সংযুক্ত করা হবে। শান্তি স্থাপনের জন্য সব ধরনের চেষ্টা চলবে। জম্মু-কাশ্মীরে উন্নয়ন হচ্ছে। আগামী দিনে বিধানসভা নির্বাচন হবে। প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। লাদাখে আধুনিক পরিকাঠামো গড়ে তোলা হচ্ছে। সেখানে উচ্চশিক্ষার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
  • দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে অনগ্রসর শ্রেণির মানুষের হাত ধরতে হবে, দলিত, আদিবাসী ও সংখ্যালঘুদের জন্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। উন্নয়নে কেউ যেন পিছনে পড়ে না থাকেন, তা নিশ্চিত করতে কাজ করছি আমরা। সর্বাত্মক বিকাশই আমাদের লক্ষ্য।
  • আয়ুষ্মান ভারত যোজনার মাধ্যমে প্রত্যন্ত প্রান্তরেও আধুনিক চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত ৭৫ হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। ব্লক স্তরেও ভালহাসপাতাল এবং গবেষণাগার তৈরিতে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালগুলি নিজস্ব অক্সিজেন প্লান্ট পাবে খুব শীঘ্রই।
  • গত ৭ বছরে শুরু হওয়া অনেক প্রকল্পের সুবিধা কোটি কোটি দরিদ্রের দোরগোড়ায় পৌঁছেছে। উজ্জ্বলা থেকে আয়ুষ্মান ভারত পর্যন্ত। আজ, সরকারি স্কিমগুলি গতি বাড়িয়েছে এবং তাদের লক্ষ্যে পৌঁছে যাচ্ছে।
  • আমাদের সব লক্ষ্য অর্জনে সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস এবং সবকা প্রয়াস খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
  • প্রতিটি দেশের উন্নয়ন যাত্রায় এমন একটি সময় আসে যখন সেই জাতি নিজেকে একটি নতুন প্রান্ত থেকে শুরু করে, যখন সে নিজেকে নতুন রেজুলেশন নিয়ে এগিয়ে নিয়ে যায়। আজ, সেই সময় এসেছে ভারতের উন্নয়ন যাত্রায়।
  • গোটা বিশ্বে সবচেয়ে বড় টিকাকরণ প্রকল্প ভারতে চলছে। কোউইন অ্যাপের মাধ্যমে টিকার ডিজিটাল সার্টিফিকেট দেওয়ার বিষয়টি বিশ্বের অন্য দেশগুলিকেও আকর্ষণ করছে।
  • আগামী বছর থেকে প্রতিবছর ১৪ আগস্ট বিভাজন বিভিষীকা স্মৃতি দিবস পালন করা হবে। দেশ ভাগের সময় যে সমস্ত দেশবাসী অমানবিক পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন, তাদের সম্মান জানাতেই এই পদক্ষেপ।
  • টোকিও অলিম্পিকে যেসব ক্রীড়াবিদ আমাদের গর্বিত করেছেন তাঁরা আজ আমাদের মাঝে আছেন। আমি জাতির প্রতি আহ্বান জানাই আজ তাঁদের কৃতিত্বকে সাধুবাদ জানাতে। তাঁরা শুধু আমাদের হৃদয় জয় করেননি বরং ভবিষ্যত প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করেছেন।
  • অতিমারি পরিস্থিতিতে দেশের চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মীরা একজোট হয়ে কাজ করেছেন। বিজ্ঞানীরা টিকা বানাতে সাহায্য করেছেন। দেশবাসীকে বাঁচাতে সাহায্য করেছেন। তাঁদের আমার ধন্যবাদ।
  • লালকেল্লায় পুষ্পবৃষ্টি। বায়ুসেনার দু’টি হেলিকপ্টারে গোলাপের পাপড়ি ছড়িয়ে দেওয়া হল, পুষ্পবৃষ্টির পরই  দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ শুরু মোদীর।
  • স্বাধীনতা দিবসে  লালকেল্লা থেকে ভাষণে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর। স্বাধীনতা সংগ্রামীদের স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী।

  • লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন প্রধানমন্ত্রীর

  • লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অফ অনার

  • লালকেল্লায় পৌঁছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁকে স্বাগত জানালেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।
  • রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধীর সমাধিস্থলে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী