Gang Rape: লকডাউনে বন্ধুদের সঙ্গে স্কুটিতে বেরানো ১৮ বছরের মেয়েকে ৬জনের গণধর্ষণ
ছবি সংগৃহীত

বারেলি, ৬ জুন: উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) ফের গণধর্ষণের (Gang Rape) অভিযোগ। যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যের বারেলিতে ১৮ বছরের এক দলিত মেয়ের অভিযোগ স্কুটিতে স্কুলের বন্ধুদের সঙ্গে একগ্রামের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ৬ জনে মিলে জোর করে টেনে নিয়ে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। উত্তরপ্রদেশের বারেলির পাশে ভগবানপুরের ধিমরি গ্রামে এই গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। ধর্ষণের জেরে মেয়েটি গুরুতর জখম ও মানসিক বিপর্যস্ত অবস্থায় রয়েছে। আরও পড়ুূন: 

Uttar Pradesh: গৃহবধুকে ঝাড়ফুঁকের নামে ধর্ষণ করে পালল ভন্ড তান্ত্রিক

লকডাউন চলাকালীন ৩১ মে বন্ধুদের সঙ্গে স্কুটিতে কোনও এক কাজে গ্রামের পাশ দিয়ে যাচ্ছিল ১৮ বছরের সেই মেয়েটি। এক গ্রামের কাছে এলে সেই মেয়েটি ও তার বন্ধুদের বাইক হাত দেখিয়ে জোর করে দাঁড়ায় ৬জন গ্রামবাসী। তারপর সেই মেয়েটিকে স্কুটি থেকে জোর করে টানতে টানতে ফাঁকা একটু শুকনো খালের ধারে নিয়ে গিয়ে ৬জনে ধর্ষণ করে। সেই সময় তার বন্ধুদের জোর করে আটকে রাখা হয় বাইকের পাশে। ধষর্ণের কথা কাউকে বলে তাদের সবাইকে খুন করা হবে বলে হুমকিও দেওয়া হয়। দু দিন ভয়ে বাড়ির লোককে কাউকে কিছু জানায়নি। তারপর বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করে সাহজ জুগিয়ে মেয়েটি সরাসরি থানায় গিয়ে এফআইআর দায়ের করে। ধর্ষণের আগে তারা একে অপরকে ধর্মেন্দ্র, অনুজ, বিশাল, নিরাজ, অমিত এবং নরেশ নামে ডাকছিল বলে পুলিশকে মেয়েটি জানায়। নরেশ নামের ছেলেটিই সবচেয়ে বেশি নৃশংস ও দলকে চালাচ্ছিল বলে পুলিশকে জানায় মেয়েটি।

পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পারে অভিযুক্তরা সবাই ওই গ্রামেরই বাসিন্দা। হেনস্থা হওয়া মেয়েটির বন্ধুরা জানায়, তাদের ফোন, মানি ব্যাগও কেড়ে নিয়েছিল ওরা। সঙ্গে বেধড়ক মারও খেতে হয়েছিল। মার খাওয়ার পর জ্ঞান হারানোয় তাদের বন্ধুকে বাঁচাতে যেতে পারেনি বলে তারা জানায়। মেয়েটি জানায় ধর্ষণের সময় 'বাঁচাও বাঁচাও' চিতকারের পরেও গ্রামের কেউ এগিয়ে আসেনি। ধর্ষকরা পলাতক। খুব তাড়াতাড়ি অভিযুক্তরা ধরা পড়বে বলে পুলিশ জানায়। মেয়েটির বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। মেয়েটির শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে। দেহে নির্যাতনের দাগ রয়েছে বলে খবর।