Girish Chandra Murmu Takes Oath: জম্মু-কাশ্মীরের প্রথম লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে শপথ নিলেন গিরিশচন্দ্র মুর্মু, লাদাখের উপ-রাজ্যপাল হলেন আরকে মাথুর
গিরিশচন্দ্র মুর্মু ও আরকে মাথুর (Photo Credit: ANI)

শ্রীনগর, ৩১ অক্টোবর: নতুন কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু-কাশ্মীরের প্রথম লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে আজ শপথ নিলেন গিরিশচন্দ্র মুর্মু (Girish Chandra Murmu)। শ্রীনগরের রাজভবনে (Raj Bhavan in Srinagar) এই শপথ বাক্য পাঠের অনুষ্ঠানটি হল। এই শপথ বাক্য পাঠের সঙ্গে সঙ্গেই জম্মু-কাশ্মীরের (Jammu and Kashmir) ঐতিহাসিক পট পরিবর্তন ঘটে গেল। জম্মু-কাশ্মীর হাই কোর্টের বিচারপতি গীতা মিত্তল গিরিশচন্দ্র মুর্মুকে শপথ বাক্যপাঠ করান। গত ২১ অক্টবোর জম্মু-কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নরের পদে নিযুক্ত হন। তেমনই কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল লাদাখের লেফটেন্যান্ট গভর্নর হয়েছেন রাধাকৃষ্ণ মাথুর। ২০১৮-র আগস্ট থেকে ২০১৯-র অক্টোবর পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপালের দায়িত্ব সামেছেন সত্যপাল মালিক। উপত্যকা থেকে ৩৭০ (Article 370) ও ৩৫-এর এ ধারা তুলো নেওয়ার পর এবং বিশেষ স্টেটাস খর্ব করার তিনমাস পর বদলি হলেন সত্যপাল মালিক।

বর্তমানে সত্যপাল মালিক হলেন গোয়ার রাজ্যপাল। আগস্টে এই রাজ্যে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞলে ভাগ হয়ে গেল। একটি জম্মু-কাশ্মীর অন্যটি লাদাখ। আজ ৩১ অক্টোবর থেকেই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত হয়ে গেল জম্মু-কাশ্মীর। অন্যদিকে ২০১৭ সালে পিডিপি-র নেতৃত্বাধীন সরকার থেকে বিজেপি সমর্থন তুলে নেওয়ায় পদত্যাগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি (Mehbooba Mufti)। এরপরই উপত্যকায় কেন্দ্রীয় শাসন জারি হয়। প্রথম ৬ মাস ছিল রাজ্যপালের শাসন। এরপর ৬ মাসের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়। তবে সংসদের অনুমোদনে সেই মেয়াদ ক্রমেই বাড়ানো হয়। এদিনই লাদাখের লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে শপথ নিয়েছেন প্রাক্তন নিরাপত্তা সচিব আরকে মাথুর (RK Mathur)। মাথুরকে শপথবাক্য পাঠ করান জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি গীতা মিত্তল (Gita Mittal)। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খারিজ করে দেওয়ার পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মীর থেকে লাদাখকে আলাদা করে একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়। আরও পড়ুন-Radio Kashmir became All India Radio from today: আজ থেকে উপত্যকার রেডিও কাশ্মীর হয়ে গেল অলইন্ডিয়া রেডিও, কেন জানেন?

শপথ বাক্য পাঠের পর মাথুর বলেন, উন্নয়ন হল সম্মিলিত প্রচেষ্টা। সব এলাকায় উন্নয়নের কাজ পরিচালনা করা হবে। লাদাখের জন্য একটি উন্নয়নের প্যাকেজ তৈরি করা হবে। সেই প্যাকেজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে স্বাস্থ্য ও শিক্ষার অগ্রাধিকার।