Radio Kashmir became All India Radio from today:  আজ থেকে উপত্যকার রেডিও কাশ্মীর হয়ে গেল অলইন্ডিয়া রেডিও, কেন জানেন?
আকাশবাণী(Photo Credit: Twitter)

শ্রীনগর, ৩১ অক্টোবর: আজ জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের তকমা ছেড়ে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল হিসেবে পরিচিত হয়েছে। সেই সঙ্গে রেডিও কাশ্মীর (Radio Kashmir) হয়েছে অতীত। লে,(Leh) জম্মু ও শ্রীনগর রেডিও স্টেশন হয়ে গিয়েছে অল ইন্ডিয়া রেডিও। জম্মু-কাশ্মীরের রেডিও স্টেশন রেডিও কাশ্মীরকে আর কেউ চিনবেন না। আজ থেকে অল ইন্ডিয়া রেডিও (All India Radio) অথবা আকাশবাণী (Akashvani) । এটি একটি ঐতিহাসিক ব্যাপার। ইতিমধ্যেই কেন্দ্র শাসিত উপত্যকার নতুন রাজ্যপাল হয়েছেন গিরিশচন্দ্র মুর্মু (GC Murmu)। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ramnath Kovind) তাঁকে এই পদে নিয়োগ করেছেন।

চলতি বছরের আগস্টেই জম্মু-কাশ্মীরের পুনর্গঠন বিল পাস হয়ে গিয়েছে সংসদে। এই বিল রাষ্ট্রপতির সিলমোহরে আইনে পরিণত হয় ৯ আগস্ট। আইনানুসারে এখন পৃথক কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল হয়ে গিয়েছে জম্মু-কাশ্মীর (Jammu-Kashmir)। লাদাখ (Ladakh)ও আলাদা কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল (Union Territory)। তবে জম্মু-কাশ্মীরে আইনসভা রয়েছে। লাদাখে আইনসভা নেই। দুই দিকেই নতুন রাজ্যপাল নিয়োগ হয়েছেন। জম্মু-কাশ্মীরে গিরিশচন্দ্র মুর্মু। লাদাখে রাধাকৃষ্ণ মাথুর। এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপালের পদ থেকে অব্যাহতি পেয়ে তিনি এখন গোয়ার রাজ্যপাল। এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের এই ভোলবদল নিয়ে প্রতিবেশী পাকিস্তানের সমস্যার অন্ত নেই। কাশ্মীরের মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে। এই বক্তব্যকে মুখ্য করে বিশ্বসভায় দিল্লির সরকারকে কলঙ্কিত করার চেষ্টা করেছিল পাকিস্তান তবে লাভ কিছু বয়নি। এক চিন ছাড়া আর কোনও দেশই এনিয়ে খুব বেশি উচ্চবাচ্চ করেনি। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলি পাকিস্তানের দরবার কানে তোলেনি। তবে বার তিনেক ভারত-পাক সম্পর্কের মধ্যে মাথা গলানোর চেষ্টা করছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে ভারত সফা জানিয়ে দেয় এটি দুই দেশের বিষয়, অন্য কারোর মাথা গলানোর দরকার নেই। আর কাশ্মীর সমস্যা ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার, বাইরের কারও নাক গলানোর দরকার নেই। আরও পড়ুন-Sardar Vallabhbhai Patel 144th Birth Anniversary: সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন নরেন্দ্র মোদির, জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে কাশ্মীর নিয়ে অজস্র বার্তা

এরপর ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিপুঞ্জের সাধারণ সবার অধিবেশনে পাকিস্তান ফের ভারতকে ছোট করার চেষ্টা করে। তবে এবারেও ব্যর্থ হয়। ইমরান খান ইতিমধ্যে দ্বিতীয় পুলওয়ামা হামলার হুমকি দিয়েছেন। বার বার উপত্যকায় হামলা চালিয়েছে বা চালাচ্ছে। দুদিন আগেও পাঁচ বাঙালি শ্রমিককে খুন করেছে জঙ্গিরা। গত কয়েকদিনে পাঞ্জাবী আপেল ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে বেশ কয়েকজন খুন হয়েছেন উপত্যকায়।