Madras High Court: ‘করোনাকালে রাজনৈতিক জনসভা, খুনের দায়ে পড়তে পারে নির্বাচন কমিশন’
মাদ্রাজ হাইকোর্টের ফাইল ছবি (Photo Credits: PTI)

চেন্নাই, ২৬ এপ্রিল: দেখতে দেখতে দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বজুড়ে চলছে মহামারী। করোনাভাইরাসে প্রাণ গিয়েছে কোটির কাছাকাছি মানুষের। তারপরেও কী করে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কমিশন কোভিড বিধি বলবৎ করল না, তানিয়েই প্রশ্ন তুলেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। সোমবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের তরফে বলা হয়, মহামারীর মধ্যে কীকরে নির্বাচন কমিশন রাজনৈতিক জনসভার অনুমতি দিল। “ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জন্য দায়ী নির্বাচন কমিশন।”। এদিন এজলাসে একথাই স্পষ্ট করে দিলেন মাদ্রাজ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে দৃশ্যতই হতাশ বিচারপতি বললেন, “করোনা মহামারীর মধ্যে রাজনৈতিক জনসভার অনুমতি দেওয়ায় নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের হওয়া উচিত।” আরও পড়ুন-Rajan Mishra Died: কোভিডের গ্রাস, প্রয়াত পদ্মশ্রী পণ্ডিত রাজন মিশ্র

কমিশনের তরফে যে আইনজীবী এদিন এজলাসে হাজির ছিলেন তাঁকে উদ্দেশ্য করে বিচারপতি বলেন, “আদালতের নির্দেশিকা থাকা সত্ত্বেও রাজনৈতিক মিছিলে জনসভায় মাস্ক পরেননি কেউই। স্যানিটাইজার ব্যবহার করেননি। সামাজিক দূরত্ব বিধি মানেননি। সর্বোতই নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতা ফুটে উঠেছে। যখন রাজনৈতিক জনসভা হচ্ছিল তখন কী আপনার অন্যগ্রহে বসবাস করছিলেন?” হাইকোর্ট রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছে, যদি আগামী ২ মে ভোট গণনার দিনের জন্য সঠিক কোভিড বিধির বন্দোবস্ত না হয়। সেই সংক্রান্ত ব্লুপ্রিনট আগে আদাললতের সামনে পেশ করতে হবে। নতুবা গণনা স্থগিত হয়ে যাবে।