WBBSE Madhyamik 10th Result 2019: আগের সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেল মাধ্যমিকের পাশের হার, প্রথম পূর্ব মেদিনীপুরের সৌগত দাস, দেখুন মেধা তালিকা, অনলাইনে Online চেক করুন wbse.org, wbresults.nic.in-এ
এবারের মাধ্যমিকে পাশের হারে রেকর্ড। (প্রতীকী ছবি)(Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ২১ মে: মাধ্যমিক পরীক্ষা (WBBSE Madhyamik 10th Result 2019)-র ফলাফল ঘোষিত হল। এবার মাধ্যমিকে পাশের হার আগের সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেল। এবার পাশের হার ৮৬.০৭ %। পর্ষদের ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ। প্রসঙ্গত, গত বছর মাধ্যমিকে পাশের হার ছিল ৮৫.৪৯%। ভিন্নভাবে সক্ষম পরীক্ষার্থীদের পাশের হার ৯৪.৫৯। গত বছর পরীক্ষা বাতিল হয়েছিল ১৭ জনের, চলতি বছর বাতিল হয়েছে ৭৩ জনের। পূর্বমেদিনীপুরে সাফল্যের হার সর্বাধিক(৯৬%)। সেখানে কলকাতায় পাশের হার ৯২.১৩ শতাংশ। রাজ্যের মধ্যে সাফল্যের হারে কলকাতা দ্বিতীয় স্থানে। মোট ১০লক্ষ ৫০হাজার ৩৯৭জন ছাত্রছাত্রী এবার মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসেছিলেন। ছাত্রীদের পাশের হার ৮৩.৮৭ শতাংশ, ছাত্রদের পাশের হার ৭৯.৮৯ শতাংশ। ৮৮ দিনের মাথায় ফলপ্রকাশ করা হল। মেধাতালিকায় প্রথম দশে রয়েছেন মোট ৫১ জন। সকাল ১০টা থেকে wbse.org, wb.results.nic.in-ওয়েবসাইটগুলির মাধ্যমে জানা যাচ্ছে ফলাফল। পর্ষদ (WBBSE)-এর নির্দিষ্ট ক্যাম্প অফিস থেকে সকাল ১০ টায় মার্কশিট ও অন্যান্য সার্টিফিকেট দেওয়া শুরু হয়েছে। সফল ছাত্রছাত্রীদের অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)।

এক নজরে দেখে নিন মেধা তালিকা (প্রথম দশ)

প্রথম স্থান-

সৌগত দাস (পূর্ব মেদিনীপুর,মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপিঠ) (৭০০ নম্বরের মধ্যে ৬৯৪)

দ্বিতীয় স্থান (দু জন)

শ্রেয়সী পাল ও দেবস্মিতা সাহা ( প্রাপ্ত নম্বর ৬৯১)

তৃতীয় স্থান (দু জন)

ক্যামেলিয়া রায় ও ব্রতীন মন্ডল (প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৯ )

চতুর্থ স্থান

অরিত্র সাহা (প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৭)

পঞ্চম স্থান (দু জন)

সুকল্প দে, রুমানা সুলতানা (প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৬)

ষষ্ঠ স্থান (পাঁচ জন)

সোহম দে, সাবর্ণী চট্টোপাধ্যায়, সাহিত্যিকা ঘোষ, সুপর্ণা সাহু,অঙ্কন চট্টোপাধ্যায় (প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৫)

সপ্তম স্থান (তিন জন)

গায়ত্রী মোদক, সপ্তর্ষি দত্ত, অনীক চক্রবর্তী ( প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৪)

অষ্টম স্থান (আট জন)

শাহনাজ আলম, কৌশিক সাঁতরা, সুদীপ্তা ভবল, সায়ন্তন দত্ত ,দেবলীনা দাস, অয়ন্তিকা মাঝি, পুষ্কর ঘোষ, সেমন্তী চক্রবর্তী ( প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৩)

নবম স্থান (৯ জন)

জয়েশ রায়, অনুষ্কা মহাপাত্র, সৌগত পাণ্ডা, শুভদীপ কুণ্ডু, প্রবীর সেনগুপ্ত, সৌকর্য বিশ্বাস, অরুণিমা ত্রিপাঠি, অভিনন্দন জানা, ঐকিক মাঝি (প্রাপ্ত নম্বর ৬৮২)

দশম স্থান (১৫ জন)

সঞ্চারী চক্রবর্তী, সায়ন্তিকা দাস, সৌধ হাজরা, সাথী কুণ্ডু, রিমা চৌধুরী, সৌম্যদীপ দত্ত, অরিত্র মহড়া, সৌম্যদীপ ঘোষ, সায়ন্তিকা রায়, শুভদীপ মাঝি, সহেলী রায়, দেবমাল্য সাহা, প্রত্যাশা মজুমদার, অঙ্কিতা কুণ্ডু, সোহম দাস ( প্রাপ্ত নম্বর ৬৮১)

চলতি বছর মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা ছাত্রদের চেয়ে ১লক্ষ ৩১হাজার ৯৬১জন বেশি ছিল। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পরীক্ষার্থী ছিল ১লক্ষ ৭১হাজার ৬৭৯। ১২.৫৬ শতাংশ ছাত্রী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে।

SMS-করেও জানতে পারা যাচ্ছে ফলাফল। চলতি বছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা (Madhymik Examination) শুরু হয়েছিল ১২ ফেব্রুয়ারি। পরীক্ষা শেষ হয় ২২ ফেব্রুয়ারি। পরীক্ষার ৮৮দিনের মাথায় ফলপ্রকাশ হল। ৭০০-র মধ্যে ৬৯৪ নম্বর পেয়ে প্রথম হলেন পূর্ব মেদিনীপুরের মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠের ছাত্র সৌগত দাস।

কোন কোন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানতে পারবেন ফল ( Websites to Check WBBSE 10th Madhyamik Result 2019)

একাধিক ওয়েবসাইটে সরাসরি জানা যাচ্ছে ফলাফল। সেগুলি নিচে দেওয়া হল--

wbse.org

wbbse.org

wbresults.nic.in

wb.allresults.nic.in

examresults.net

যেভাবে SMS-এর মাধ্যমেও জানা যাবে ফলাফল (Check WBBSE 10th Madhyamik Result 2019 via SMS)

মাধ্যমিক ২০১৯ (WBBSE 10th Madyamik result 2019)-এর ফলাফল SMS-র মাধ্যমেও জানা যাবে। পশ্চিমবঙ্গ বোর্ডের দশম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীরা যেভাবে তাদের ফলাফল মোবাইলে এসএমএস-এর মাধ্যমে জানতে পারবেন তা হল- WB10,তারপর লিখতে হবে রোল নম্বর এবং তারপর পাঠিয়ে দিতে হবে 54242/ 56263/58888 নম্বরে। এরপরেই ফোনের ম্যাসেজ বক্সে চলে আসবে ফলাফল। রেজাল্ট বেরানোর পর SMS-এ ফল জানতে www.exametc.com-এ মোবাইল নম্বর এবং রোল নম্বর দিয়ে রেজিস্টার করতে। পাশাপাশি Google Play store থেকে ডাউনলোড করতে পারেন Madhyamik Result 2019 বা www.result.shiksha অ্যাপগুলি।

চলতি বছর মাধ্যমিকে মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১০ লক্ষ ৫০ হাজার ৩৫৭ জন। মাধ্যমিকের পরেই ২৭ মে প্রকাশিত হবে উচ্চমাধ্যমিক (West Bengal Higher Secondary Result 2019)-এর ফল। ২০১৮ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল জুনে প্রকাশিত হয়েছিল। এবার মাধ্যমিক পরীক্ষায় মেয়েদের সংখ্যা ছেলেদের চেয়ে বেশি। তবে সাফল্যের হারে ছাত্রীরা সামান্য পিছিয়ে থাকলেন। ছাত্রীদের পাশের হার গতবারের থেকে এক শতাংশ বেড়েছে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় এবারও সাফল্যের হার সবচেয়ে বেশি। এই তালিকায় কলকাতা আছে দু নম্বরে।