UP: ছেলে-মেয়েদের একসঙ্গে শিক্ষা নয়, তালিবানের সিদ্ধান্ত সমর্থন দারুল উলুম দেওবন্দ প্রধানের
Syed Arshad Madani (File Photo)

লখনউ, ২৫ সেপ্টেম্বর: সম্প্রতি আফগান মেয়েদের উচ্চশিক্ষা নিয়ে ডিক্রি জারি করেছে তালিবান (Taliban)। তারা জানিয়ে দিয়েছে যে ছেলে আর মেয়েরা একসঙ্গে পড়াশোনা করতে পারবে না। তালিবানের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করলেন উত্তরপ্রদেশের দারুল উলুম দেওবন্দের (Darul Uloom Deoband) অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ আরশাদ মাদানি (Syed Arshad Madani)। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পুরুষ ও মহিলাদের সম্পূর্ণভাবে আলাদা করার যে সিদ্ধান্ত তালিবান নিয়েছে তাকে তিনি সমর্থন করেন। মাদানি বলেছেন, তিনি মনে করেন আফগানিস্তানে তালিবানের ক্ষমতা দখল একটি ইতিবাচক দিক। কারণ ইসলামপন্থী আন্দোলনের ফলেই আফগানিস্তান বিদেশি দখল থেকে মুক্ত হয়েছে।

একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাদানি বলেছেন, "তালিবান হিজাব পরার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে লোকজনকে বলছে। আল্লাহ নারীদের শরীরকে পুরুষদের থেকে আলাদাভাবে সৃষ্টি করেছেন। তাই তাঁদের এমন পোশাক পরতে হবে যাতে লালসা তৈরি না হয়।" আরও পড়ুন: Cyclone Gulab: বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিচ্ছে পাকিস্তানি 'গুলাব'? সতর্কতা

মাদানি ভারতের উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, ভারতে প্রচুর বিশ্ববিদ্যালয় এবং হাজার হাজার কলেজে রয়েছে। যেখানে শুধুমাত্র মহিলারা পড়াশোনা করেন। তাঁর প্রশ্ন, "যদি এটা আমাদের দেশে হতে পারে, তাহলে আফগান সরকারও যদি একই কাজ করতে চাই তাতে ভুল কি আছে? যদি আফগান সরকার মেয়েদের জন্য পৃথক ভাবে শিক্ষার ব্যবস্থা করতে পারে, তাহলে এর অর্থ হবে যে মেয়েদের জন্য শিক্ষার দ্বার উন্মুক্ত হবে।"