নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে দিদির হলুদ গোলাপের শুভেচ্ছার পর হল প্রধানমন্ত্রী-মুখ্যমন্ত্রী বৈঠক, বীরভূমে কয়লা খনির উদ্বোধনে মোদিকে আমন্ত্রণ মমতার
মোদির বাসভবনে মমতা। (Photo Credits: ANI)

নয়া দিল্লি, ১৮ সেপ্টেম্বর: দীর্ঘদিন পর দেখা হল দু জনের। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) -র বাসভবনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সাড়ে ৪টে নাগাদ মোদির বাসভবনে যান মমতা। ৭ লোক কল্যাণ মার্গে মোদির বাসভবনে গিয়েই উষ্ণ অভ্যর্থনা পান মমতা। মোদিকে হলুদ গোলাপ হাতে তুলে বন্ধুত্বের বার্তা পাঠান মুখ্যমন্ত্রী। মমতাকে হাসিমুখে পাল্টা শুভেচ্ছা জানান মোদি। এরপর শুরু হয় বৈঠক। ঘণ্টাখানেক ধরে চলে মোদি-মমতার বৈঠক। ক দিন আগেও দুজনের সম্পর্কটা একেবারে তলানিতে ঠেকেছিল, আজ বৈঠকের পর সেই খারাপ সম্পর্কটা কতটা ঠিক হল তা নিয়ে চলছে জল্পনা। রাজ্যের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকা আর্থিক প্যাকেজের দাবি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বৈঠকের পর হাসিমুখে সাংবাদিকদের কাছে মমতা জানান, ''NRC নিয়ে কোনো কথা হয়নি। তবে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে। পুজোর পর বীরভূমের দেউচা- পাঁচামি কয়লাখনি প্রকল্পের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। ১২ হাজার কোটি টাকার এই কয়লাখনিতে লক্ষাধিক কর্মসংস্থান হবে।'' রাজ্যের নামে যাতে বাংলা কথাটি থাকে তার আর্জিও জানান মমতা। অমিত শাহ সময় দিলে আগামিকাল, দিদি-শাহ বৈঠক হতে পারে। আরও পড়ুন-রেলের কর্মীদের মোটা বোনাসের কথা ঘোষমা কেন্দ্রীয় সরকারের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) শপথ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ( Mamata Banerjee)। কেন্দ্রের বহু অনুষ্ঠান থেকে নিজেকে বিরত রেখেছিলেন। প্রায় আড়াই বছর আজ বিকেলে নয়া দিল্লিতে (New Delhi) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বসলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এভাবেই মোদিকে ফুল দিয়ে জানালেন মমতা। (Photo Credits: ANI)

গতকাল দিল্লি রওনা হওয়ার সময় তিনি জানিয়েছিলেন- 'আমি তো ৩৬৫ দিন কলকাতাতেই থাকি। দিল্লি খুব কম যাই। দিল্লিতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী সবাই রয়েছেন। তাই কখনও কখনও রাজ্যের কাজে যেতে হয়। এটা রুটিন কাজ। দিল্লি যাচ্ছি কারণ রাজ্যের কিছু টাকা পাওনা আছে। এয়ার ইন্ডিয়া (Air India), বিএসএনএল (BSNL) থেকে শুরু করে গেইল-এর কিছু প্রবলেম আছে। সুযোগ পেলে সেসব নিয়ে কথা বলব।

গতকাল বিকেল থেকেই মোদি- মমতা নিয়ে সরগরম ছিল পশ্চিমবঙ্গ রাজনীতি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল নরেদ্র মোদির জন্মদিন উপলক্ষে তাঁকে শুভেচ্ছাবার্তা দেন। নরেন্দ্র মোদি তার ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন বাংলা ভাষায়। এতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় বয়ে যায়। এছাড়াও মোদি- মমতা সাক্ষ্যৎকে কেন্দ্র করে গতকাল অনেক জল্পনার সৃষ্টি হয়।