Cyclone Yaas: ঘূর্ণিঝড় য়াসে মৃত ও আহতদের পরিবারকে অর্থ সাহায্য, জানাল প্রধানমন্ত্রীর দফতর
নরেন্দ্র মোদী

কলকাতা, ২৮ মে: হিঙ্গলগঞ্জ এবং সাগরে রিভিউ বৈঠকের পর কলাইকুণ্ডায় উড়ে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। য়াসের (Yaas) দাপটে রাজ্যে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, সে বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রী মোদীর হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। য়াসের রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিলেও, কলাইকুণ্ডার বৈঠকে হাজির হননি মুখ্যমন্ত্রী। ফলে প্রধানমন্ত্রীর হাতে রিপোর্ট তুলে দিয়ে দিঘায় উড়ে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঘূর্ণিঝড় (Cyclone) য়াসের দাপটে রাজ্যে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে,তার জন্য পশ্চিমবঙ্গকে ৪০০ কোটি দেওয়া হচ্ছে কেন্দ্রের তরফে। য়াস বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গকে কেন ৪০০ কোটি দেওয়া হচ্ছে, তা নিয়ে অসন্তুষ্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত য়াসের দাপটে ক্ষতিগ্রস্থ ওড়িশাকে (Odisha) ৬০০ কোটি সাহায্য করা হচ্ছে কেন্দ্রের তরফে। ওড়িশাকে ৬০০ কোটি দেওয়া হলেও, বাংলার ক্ষেত্রে কেন ৪০০ কোটি, তা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত য়াস নিয়ে বৈঠকের সময় ত্রাণ বাবদ তিন রাজ্যের জন্য ওই অর্থের কথা উল্লেখ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ত্রাণ বাবদ উল্লিখিত অর্থ নিয়েই শুক্রবার বেশ খানিকটা অসন্তোষ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: Corona Vaccination: একুশের ডিসেম্বরের আগেই গোটা দেশের মানুষকে করোনার টিকা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার

এদিকে প্রধানমন্ত্রী মোদীর (PM Modi) সঙ্গে বৈঠকের সময় শুভেন্দু অধিকারীকে কেন ডাকা হল, তা নিয়ে আপত্তি তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে শুভেন্দু অধিকারী থাকায় মুখ্যমন্ত্রী কলাইকুণ্ডায় হাজির হলেও বৈঠক এড়িয়ে যান বলে খবর পাওয়া যায়। এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দিঘার বৈঠকে তাঁর হাজির হতেই হত, সেই কারণে তিনি প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে থাকতে পারেননি।

 

অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত মানুষের পাশে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং তাঁর সরকার। ঘূর্ণিঝড় য়াসের জেরে মৃতদের পরিবারকে নগদ ২ লক্ষ এবং আহতদের ৫০ হাজার করে সাহায্য করা হবে বলে জানানো হয় প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে।