Sopore Terror Attack: সোপরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে সিভিলিয়নের মৃত্যু হয়নি, অভিযোগ ওড়ালো সিআরপিএফ
সেনা জওয়ানদের ফাইল ছবি (Photo Credits: IANS)

শ্রীনগর, ২ জুলাই: জম্মু ও কাশ্মীরের সোপোরে নিরাপত্তা বাহিনীর ছোঁড়া গুলিতেই স্থানীয় বাসিন্দা নিহত হয়েছেন। এই খবরে যখন গোটা দেশ উত্তাল, তখন সিআরপিএফ (CRPF) অভিযোগ ওড়ালো। এনিয়ে এক বিবৃতিতে জম্মু ও কাশ্মীরের সিআরপিএফ এডিজি জলফিকার হাসান বলেন, এটি দুঃখজনক ঘটনা। সিআরপিএফ জওয়ানরা ওই ব্যক্তিকে গাড়ি থেকে নামিয়ে গুলি করে মেরেছে। এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন ও অসত্য। মৃত ব্যক্তির ছেলে মেয়ের অভিযোগ, তাঁদের বাবাকে খুন করেছে সিআরপিএফ জওয়ানরা। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এরপর বৃহস্পতিবার এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বললেন জুলফিকার হাসান। এর আগে জম্মু ও কাশ্মীরের প্রশাসনের তরফেও এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়।

এই প্রসঙ্গে কাশ্মীরের আইজিপি বিজয় কুমার বলেন, সোপরের মডেল টাউনে দুই লস্কর জঙ্গি মসজিদের ভিতরে লুকিয়ে ছিল। খবর পেয়ে সেনার তরফে তল্লাশি অভিযান শুরু হলে নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে দুই জঙ্গি। এই ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একজন সিআরপিএফ-এর প্রধান কনস্টেবল, অন্যজন স্থানীয় বাসিন্দা। এই ঘটনার সময় কোনওরকম গুলি চালায়নি সিআরপিএফ। এই হামলার মূলে দুই লস্কর জঙ্গি। একজন স্থানীয়, তার নাম আদিল। প্রথম জঙ্গি পাকিস্তানের নাগরিক, তার নাম উসমান ভাই। আরও পড়ুন- Priyanka Gandhi: কেন্দ্রীয় নির্দেশিকার পর দিল্লি থেকে লখনউতে শিফট করছেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী

জানা গিয়েছে, যখন নিরাপত্তা বাহিনী মডেল টাউনের মসজিদে লস্কর জঙ্গি লুকিয়ে থাকার খবর পায় তখন তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। গাড়ি থেকে নামার সময়ই নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের লক্ষ্য করে মসজিদের ভিতর থেকে গুলি চালাতে শুরু করে ২ জঙ্গি। এই ঘটনায় ১ সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হয়েছেন। আহত আরও ৩ জন। জঙ্গিদের ছোঁড়া গুলিতে এক স্থানীয় বাসিন্দাও আহত হন। পড়ে তাঁর মৃত্যু হয়। নাবালক নাতির সামনেই দাদুর প্রাণ যায়। দাদু জাগছে না দেখে শিশুটি বুকের উপরে চড়ে বসে, এই হৃদয় বিদারক ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।