India-China Face-Off: লাদাখে ভারত- চিন সংঘর্ষে '২০ জনের কম' সেনা হতাহত, স্বীকার করল চিন
গালওয়ান ভ্যালি (Photo Credits: ANI|File)

নতুন দিল্লি, ২২ জুন: ভারত- চিন সীমান্ত বিবাদ (India-China Standoff) সংঘর্ষে লালফৌজের ১৬ জন সেনার মৃত্যু হয়, তাদের দেহ চিনের হাতে তুলে দেওয়া হয় বলে জানায় ভারত। চিন সোমবার এ বিষয়ে মুখ খোলে। তারা জানায় লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণের লাইন (LAC) বিবাদে চিনা সেনার মৃত্যু হয়েছে, তবে সংখ্যাটি '২০ জনের কম'। ঠিক কতজন সেনার মৃত্যু হয়েছে তা তারা স্পষ্ট করেনি। এখনও পর্যন্ত, কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী ভারতের ২০ জন সেনা গালওয়ান ভ্যালিতে প্রাণ হারিয়েছেন।

বেইজিং-এ চাইনিজ কমিউনিটি পার্টির মুখপাত্র সোমবার জানিয়েছেন, চিন এতদিন সেনা মৃত্যুর কথা যেন জানায়নি সেই বিষয়ে জানায়, তারা কোনওরকম তীব্রতাবৃদ্ধির থেকে বিরত থাকছিল। গ্লোবাল গ্লোবাল টাইমসের এক পর্যবেক্ষকের টুইট অনুযায়ী, চিন যদি তাদের সেনার মৃত্যু সংখ্যা প্রকাশ করত, তবে তা ভারতকে চাপের মধ্যে ফেলতে পারত। চিনের বিশ্লেষক ও পর্যবেক্ষকদের কথা অনুযায়ী, চিন তাদের সৈন্যদের মৃত্যু সংখ্যা লুকিয়ে ভারতকে সন্তুষ্ট করতে চেয়েছিল, কারণ ভারত মনে করছিল চিন ভারতের থেকে বেশি সৈন্যকে হারিয়েছে। আরও পড়ুন, নিয়ন্ত্রণ রেখায় কড়া হাত চিনের আগ্রাসন মোকাবেলা করতে হবে, সেনাকে নির্দেশ কেন্দ্রীয় সরকারের

শনিবার সেনাপ্রধান ভি কে সিং প্রথমে দাবি করেছিলেন, সংঘর্ষে ভারতের মাটিতে চিনের ৪০ জন সেনার প্রাণ যায়। ১৫ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে ভারতীয় সেনার ওপর বর্বরোচিত হামলা চালায় চিনা ফৌজ। হামলা চালানো হয় পেরেক ও কাঁটাতার লাগানো কাঠের তক্তা, রড,পাথর দিয়ে। এই হামলায় এক সামরিক কর্নেল সহ ২০ জন ভারতীয় জাওয়ানের মৃত্যু হয়। কমপক্ষে ৭৬ জন জখম হন। সেই থেকেই দু'দেশের মধ্যে সম্পর্কে চরম উত্তেজনা রয়েছে। চিনের যে কোনও আগ্রাসন মোকাবিলায় সেনাকে (Indian Army) পূর্ণ স্বাধীনতা দেয় কেন্দ্রীয় সরকার।