Chandra Babu Naidu: বিজেপির জন্য দরজা খুলে প্রার্থী ঘোষণা করলেন চন্দ্রবাবু নাইডু
ফাইল ফটো (Photo Credits: ANI)

লোকসভার সঙ্গে নির্বাচন হতে চলেছে অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনেরও। অন্ধ্রে মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি-কে সিংহাসন থেকে সরাতে চলচ্চিত্র তারকা পবন কল্যাণের (Pawan Kalyan) সঙ্গে হাত মেলালেন চন্দ্রবাবু নাইডু (Chandra Babu Naidu)। অন্ধ্রের ১৭৫টি বিধানসভা আসনের মধ্যে পবন কল্যানের দল জনসেনা পার্টি ২৪টি আসন ছাড়লেন তেলগু দেশম পার্টি। রাজ্যের বাকি ১৫১টি বিধানসভা আসনে লড়বে চন্দ্রবাবু নাইডুর দল। তবে বিজেপির জন্য দরজা খুলে রেখে চন্দ্রবাবু জানিয়েছেন, পদ্ম শিবির চাইলে তাদের জোট আসতে পারে, তাদের জন্য কিছু আসনে ছেড়ে রাখা হয়েছে। দুর্নীতির অভিযোগে বেশ কয়েক মাস চন্দ্রবাবু নাইডু-কে জেলে পাঠান মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি । তাই এবার জগনমোহনকে হারাতে পুরো শক্তি উজাড় করছে টিডিপি। এমন অবস্থায় দেশের শাসক দলকে কিছুতেই রাজি নন দুদে রাজনীতিবিদ চন্দ্রবাবু। জেল থেকে বেরিয়েই তেলঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসকে সমর্থন করেছিলেন টিডিপি প্রধান।

এদিন, পবন কল্যাণের পাশে দাঁড়িয়ে চন্দ্রবাবু বিধানসভা নির্বাচনে তাদের ১১৮ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলেন। ঘোষিত ১১৮ জন প্রার্থীর মধ্যে টিডিরি-র ৯৪ ও জনসেনা-র ২৪ জন। বাকি ৫৭টি বিধানসভা আসনের মধ্যে বিজেপির জন্য কিছু ছেড়ে রাখা হয়েছে। খুব শীঘ্রই এইসব আসনগুলিতে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবেন চন্দ্রবাবু। এখন দেখার বিজেপি যদি চন্দ্রবাবুর ডাকে সাড়ে দেয়, তাহলে জগনমোহন তার বাবার পুরনো পার্টি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধেন কি না।

জোর জল্পনা, টিডিপি-জনসেনা ভোটে জিতে ক্ষমতায় এলে মুখ্যমন্ত্রী হবেন চন্দ্রবাবু নাইডু-র ছেলে নারা লোকেশ। চন্দ্রবাবু এবার রাজনীতি থেকে অবসর নিতে পারে। ছেলে নারা লোকেশকে এবার মানগালাকারি কেন্দ্র থেকে দাঁড় করালেন চন্দ্রবাবু।