Andhra Pradesh: : চন্দ্রবাবু নায়ডু- ছেলে নারা লোকেশ গৃহবন্দি, প্রতিবাদে অনশনে টিডিপি সুপ্রিমো, ১৪৪ ধারা জারি রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে
অন্ধ্র প্রদেশের বিভিন্নপ্রান্তে বিক্ষোভে টিডিপি সমর্থকরা। (Photo Credits: ANI)

হায়দরাবাদ, ১১ সেপ্টেম্বর: 'চলো আত্মাকুর' Rally-কে ঘিরে উত্তপ্ত অন্ধ্র প্রদেশ (Andhra Pradesh)। গতকাল, মঙ্গলবার রাতে গুন্টুরের গ্রানথাস্রি গ্রামে রাজ্যের শাসক দল YSR কংগ্রেস ও তেলেগু দেশম পার্টি (Telugu Desam Party) কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের পর কঠোর সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। রাজ্যের উত্তপ্ত রাজনৈতিক পরিস্থির মধ্যে টিডিপি-র 'চলো আত্মাকুর' Rally-র অনুমতি বাতিল করা হয়েছে। গত সপ্তাহে অন্ধ্র প্রদেশের ক্ষমতায় আসার পর পূর্ণ করে জগনমোহন রেড্ডির সরকার। টি়ডিপি-র অভিযোগ, এই ১০০ দিনে জগনমোহন রেড্ডিৃ রাজ্যের উন্নয়ন ছেড়ে শুধু প্রতিহিংসার রাজনীতিই করে গিয়েছেন।

যে কারণে টিডিপি-র আটজন কর্মী রাজ্যে খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন বলে অভিযোগ জানিয়েছিলেন চন্দ্রবাবু নায়ডু। আর এই ইস্যুতেই আজ রাজ্যজুড়ে বড় প্রতিবাদ আন্দোলনে নামার কথা ছিল টিডিপি-র। অন্ধ্র প্রদেশে জগনমোহন রেড্ডির কাছে রাজ্যের মসনদ হারানোর পর থেকেই অন্ধ্র প্রদেশে একেবারে কোণঠাসা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু। এবার টিডিপি-র 'চলো আত্মাকুর' Rally জন্য পার্টি সুপ্রিমো চন্দ্রবাবু নায়ডু ও তার ছেলে নারা লোকেশকে গৃহবন্দি করে রাখা হল। এর প্রতিবাদ জানিয়ে চন্দ্রবাবু তাঁর বাসভবনে গৃহবন্দি অবস্থায় ১২ ঘণ্টার অনশনে বসেছেন । শুধু চন্দ্রবাবু ও তার ছেলে নয়, টিডিপি-র ছোট বড় অনেক নেতাকেই গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে বলে খবর। আরও পড়ুন-কাশ্মীর ভারতের অংশ , ৭২ বছর পর সত্যিটা স্বীকার করল পাকিস্তান(দেখুন ভিডিও)

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসছে টিডিপি কর্মীদের গৃহবন্দি করে রাখার খবর। আসছে টিডিপি-র বড় বিক্ষোভের খবরও।

জগনমোহন রেড্ডির সরকারের বিরুদ্ধে টিডিপি-র 'চলো আত্মাকুর'কর্মসূচিতে যাতে রাজ্যে হিংসা ছড়িয়ে না পড়ে সে কারণেই চন্দ্রবাবু নায়ডু সহ তার পার্টি নেতাদের গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে বলে খবর। যদিও টিডিপি-র দাবি প্রতিহিংসার রাজনীতি, আর গণতন্ত্রের কণ্ঠরোধ করতেই জগনমোহন রেড্ডি-র সরকার তাদের পার্টি নেতাদের গৃহবন্দি করে রেখেছে।

রাজ্যের শান্তি বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে বলে জানায় প্রশাসন। তার পরই চন্দ্রবাবু নায়ডু সহ টিডিপি নেতাদের গৃহবন্দি করা হতে থাকে, যাতে তারা বড় জমায়েত করতে না পারেন।