Privatisation Of Banks: কয়লা, রেলের পর এবার রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বিক্রি করছে কেন্দ্র?
প্রতীকী ছবি(Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ২১ জুলাই: সরকারি সংস্থাকে বেসরকারিকরণের লক্ষ্যে দ্বিতীয় মোদি সরকার ক্রমশ এগোচ্ছে। শোনা যাচ্ছে মাত্র ৫ টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে (PSU banks) হাতে রেখে বাকিগুলিকে বেসরকারি সংস্থার অধীনে দিয়ে দেবে কেন্দ্র। মঙ্গলবার এই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে আনলেন এক পদস্থকর্তা। এমনিতেই এখন ১২টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক রয়েছে। সেই সংখ্যাটি পাঁচে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মূলত ব্যাংকিং ক্ষেত্রে যে সামগ্রিক বদল আসতে চলেছে তারই অংশ হল রাষ্ট্রায়ত্ত বংযাকের বেসরকারি করণ। প্রাথমিক পর্যায়ে ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, সেন্ট্রাল ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাংক, ইউকো ব্যাংক, ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্র এবং পাঞ্জাব অ্যান্ড সিন্ধ ব্যাংকের নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশিদারীত্ব বিক্রি করে দেওয়ার ভাবনা আছে সরকারের।

তবে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের এই বেসরকারি করণ নিয়ে অর্থমন্ত্রকের তরফে কোনও সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি হয়নি। সাম্প্রতিক বছর গুলিতে এক টালমাটাল পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে এগিয়ে চলেছে ভারতীয় অর্থনীতি। তার মধ্যে গত কয়েক মাসের টানা লকডাউনে সরকারের আয়ের পথ ক্রমশ সংকুচিত হচ্ছে। উল্টো দিকে খরচ বাড়তে থাকার ঘটনা অর্থমন্ত্রকের আধিকারিকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। আর্থিক ঘাটতির মাত্রা বহু আগেই পার করে গিয়েছে সরকার। করোনা মহামারীর জেরে বিপর্যস্ত অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এর মধ্যেই বিভিন্ন সরকারি সংস্থার বেসরকারিকরণ শুরু করেছে কেন্দ্র। এই তালিকায় রেল, কয়লার পরে এবার এল ব্যাংকিং সেক্টর। করোনা পরিস্থিতির আগে এয়ার ইন্ডিয়া ভারত পেট্রোলিয়ামকে বিক্রি করতে তৎপরতা দেকিয়েছিল কেন্দ্র। তবে লকডাউনের পরে দুর্বল অর্থনীতি আরও খারাপ হওয়ায় সরকারি সংস্থ বিক্রি ছাড়া অন্য কোনও পথ কেন্দ্রের কাছে খোলা নেই। আরও পড়ুন-Coronavirus Cases In India: মঙ্গলবার ভারতে করোনা আক্রান্ত ১১.৫ লাখের কোটা ছাড়িয়ে গেল, ১ দিনে সংক্রামিত ৩৭,১৪৮

গত বছরই ১০টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক সংযুক্তিকরণের মাধ্যমে চারটিতে পরিণত হয়েছে। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই এবার রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের বেসরকারি করণে হাত দিল কেন্দ্র। শোনা যাচ্ছে, গোটা বিষয়টি বর্তমানে পরিকল্পনার স্তরে আছে। সেটি চূড়ান্ত রূপ পেলে অনুমোদনের জন্য ক্যাবিনেটে পেশ করা হবে। তবে গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে অর্থমন্ত্রক।