Uttar Pradesh: অর্ধেক আচার অনুষ্ঠান হয়ে যাওয়ার পর জানা গেল বরের মাথায় টাক, রাগে বিয়ে ভাঙলেন কনে!
Representational image | (Photo Credits: Unsplash)

উন্নাও, ২২ মে: অর্ধেক বিয়ে (Marriage) হয়ে যাওয়ার পর জানা গেল বরের মাথায় টাক (Wig), আর সেই কারণেই বিয়ে ভেঙে দিলেন কনে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) উন্নাওতে (Unnao)। রাত পর্যন্ত বিয়ের আচার অনুষ্ঠান অর্ধেক সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল এবং মূল আচারটি ভোরের জন্য নির্ধারিত হয়েছিল। কিন্তু সেই সময়েই পুরো দৃশ্যপট বদলে গিয়েছিল। বর মণ্ডপে ঢোকার আগে মাথা ঘুরে পড়ে গিয়ে জ্ঞান হারান। মাটিতে পড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বরের পরচুলা খুলে যায় এবং তখনই টাকের বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসে। কারণ, পরিবার বরের মাথায় টাক থাকার বিষয়টি কনের পরিবারকে জানায়নি।

কনে যখনই জানতে পারেন যে বরে মাথায় টাক রয়েছে, তখন তিনি বিয়ের বাকি আনুষ্ঠানিকতা করতে রাজি হননি। তাঁকে রাজি করানোর সব চেষ্টা বৃথা যায়। বিষয়টি স্থানীয় থানায় পৌঁছলে পুলিশের হস্তক্ষেপে অনড় থাকেন কনে। পরে পঞ্চায়েত ডাকা হয় এবং মেয়েটির পরিবার জানায় যে বিয়ের আয়োজন করতে তাদের প্রায় ৬ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে। বরপক্ষ সেই টাকা মিটিয়ে দিতে রাজি হলে সমস্যার সমাধান হয়। কনেকে ছাড়াই কানপুরে ফিরে যান বর ও বরযাত্রীরা। আরও পড়ুন: Gama Pehlwan Google Doodle: কুস্তিগীর গামা পালোয়ানের জন্মদিন বিশেষ ডুডলের মাধ্যমে উদযাপন গুগলের

কনের মামা বলেন, "আগেই টাক থাকার কথা জানালে আমরা আমাদের মেয়েকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করতে পারতাম এবং সে হতবাক হত না।" পারিয়ার পুলিশ আউট-পোস্টের ইনচার্জ রামজিৎ যাদব জানিয়েছেন যে কনে বিয়ের জন্য রাজি ছিলেন না এবং দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে।