Earthquake in Mizoram: সোমবার কাকভোরে ফের কাঁপল মিজোরাম, রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৫.৫
ভূমিকম্প (Photo Credits: PTI)

আইজল, ২২ জুন: মাস খানেক ধরে ভূকম্পনেই (earthquake) বিরাজ করছে গোটা ভারত। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ফের কাঁপল মিজোরাম। সোমবার সাতসকালে হওয়া ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৫.৩। তার জেরে কেঁপে ওঠে মণিপুরও।জাতীয় ভূমিকম্প কেন্দ্র টুইটে জানিয়েছে, সোমবার ভোর ৪.১০-এ কেঁপে ওঠে মিজোরাম। চম্ফাইতে ভূমি থেকে ২০ কিমি গভীরে ছিল কম্পনের উপকেন্দ্র। একই ভাবে রবিবার বিকেল ৪.১৬-য় কম্পন অনুভূত হয়। আইজলের থেকে ২৫ কিলোমিটার পূর্ব-উত্তরপূর্বে ভূমি থেকে ৩৫ কিলোমিটার গভীরে ছিল কম্পনের উপকেন্দ্র। তবে ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর মেলেনি। রবিবারও অসম, মেঘালয়, মণিপুর ও মিজোরামের মানুষ জোরালো কম্পন অনুভব করেন। কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.১। ভূমিকম্পের উপকেন্দ্র ছিল মিজোরামের আইজলে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, শুধু ১৪ জুন দুনিয়াজুড়ে কমপক্ষে ৫০টি ভূমিকম্প হয়েছে। রিখটার স্কেলে কম্পনের সর্বোচ্চ তীব্রতা ছিল ৫.৪, সর্বনিম্ন ২.৫। ভারত ছাড়াও কম্পন অনুভূত হয় ইন্দোনেশিয়া, হাওয়াই, পুয়ের্তো রিকো, মায়ানমার, জামাইকা, আলাস্কা, তুরস্ক, জাপান, ইরান ও ফিলিপিন্সে। এই দেশগুলির মধ্যে অনেক জায়গাতেই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একাধিক বার ভূমিকম্প হয়। আগ্নেয়গিরির লাভাস্রোতের কারণে এর মধ্যে কয়েকটি দেশ 'রেড জোন' অর্থাৎ,‌ ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকার মধ্যেই পড়ে। ভূমিকম্প সেখানে স্বাভাবিক ব্যাপার। ভূমিকম্প বিষয়ক একটি ওয়েবসাইট জানাচ্ছে, গত ২ মাস ধরে বিশ্বের রেড এবং অরেঞ্জ অঞ্চলগুলিতে আলোড়ন চলছে। তার জেরেই ক্রমাগত ভূমিকম্প হয়ে চলেছে। বিভিন্ন সূত্রের খবর অনুযায়ী, ১৪ জুন বিশ্বের ২৩টি দেশে ভূমিকম্প হয়েছে। আরও পড়ুন-Honor 5G Smartphone: নতুন খবর, ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের 5G ফোন আনছে অনার

এদিকে এর আগে, ১৮ জুন মৃদু ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলি। সে বার কম্পনের তীব্রতা ছিল ৫। মিজোরামের চম্পাইতে ভূমি থেকে ৮০ কিমি গভীরে ছিল কম্পনের উপকেন্দ্র। শিলং-সহ উত্তর-পূর্বের প্রায় সব শহরে ভূমিকম্প অনুভূত হয়। বৃহস্পতিবার সারাদিনে বার তিনেক কাঁপে ভারতের আদ্যোপান্ত। আন্দামান-নিকোবর দীপপুঞ্জ, হরিয়ানার পর দিনশেষে মিজোরাম। তবে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর নেই। ১৪ জুন গুজরাতের কচ্ছে ৫.৩ তীব্রতার ভূমিকম্পের পর ৭২ ঘণ্টায় ১৮টি আফটারশক ও দুটি মৃদু ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে সেখানকার বিস্তীর্ণ এলাকা। এ ছাড়াও পরপর ভূমিকম্প হতে দেখা গিয়েছে কাশ্মীরে। সম্প্রতি কিছুদিন ধরে ঘনঘন মৃদু থেকে মাঝারি কম্পাঙ্কের ভূমিকম্প হয়ে চলেছে ভারতের নানা প্রান্তে। ভারতের, উত্তর, উত্তর-পূর্ব থেকে পশ্চিম কোথাও বাদ নেই। গত কয়েক দিনে দিল্লিই কেঁপেছে বারকতক।