COVID-19: মাত্র ৮ মাসেই ধ্বংস হবে অ্যান্টিবডি, করোনাভাইরাস প্রতিষেধক নিয়ে কী জানাচ্ছেন গবেষকেরা
ভারতে করোনা (Photo Credits: PTI)

নয়াদিল্লি, ১২ ফেব্রুয়ারি: করোনা প্রতিষেধক (Coronavirus Vaccine) মানবশরীরে প্রয়োগের পর তৈরি অ্যান্টিবডি ৮ মাস কিংবা তার চেয়েও বেশি সময় পর্যন্ত বজায় থাকবে। শুক্রবার এমনটাই জানালেন এইমসের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া। করোনা প্রতিষেধক দীর্ঘদিনের জন্য কীভাবে মানবশরীরে রক্ষাকবচ গড়ে তুলতে পারবে, সেনিয়ে বিজ্ঞানীরা গবেষণা করছেন বলে জানাচ্ছেন অল ইন্ডিয়া অফ মেডিকেল সায়েন্সের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া (Randeep Guleria)। আরও পড়ুন: Bangla Bandh Effect On Students: ১১ মাস পরে আজই খুলছে স্কুল, বামেদের ডাকা বনধের জেরে সমস্যায় পড়ুয়ারা

কোভিড-১৯ ন্যাশনাল টাস্ক ফোর্সের সদস্য রণদীপ গুলেরিয়া। এদিন সকাল থেকেই কোভিড ১৯ প্রতিষেধক সংক্রান্ত একাধিক প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি টুইটারে। #VaccineVarta হ্যাশট্যাগ দিয়ে টুইটার ব্যবহারকারীরা টুইট করতে থাকেন। সেই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে থাকেন গুলেরিয়া।

করোনা প্রতিষেধকের সেকেন্ড শট দেওয়ার ১৪ দিন পর থেকে শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হতে থাকে। কতদিন পর্যন্ত এই অ্যান্টিবডি শরীরে থাকবে, সেটি সম্পর্কে কোনও স্পষ্ট ধারণা না থাকলেও অন্তত ৮ মাস পর্যন্ত থাকবে এই প্রতিষেধকের কার্যকারী ক্ষমতা। কখনও কখনও ক্ষেত্রে এর চেয়েও বেশি হতে পারে। লং টার্ম প্রোটেকশনের ক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই গবেষকেরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করেছেন। ১৬ জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে ৭৫,০৫,০১০ কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাক্সিন প্রতিষেধক প্রয়োগ সম্পন্ন হয়েছে।