Madhya Pradesh: মধ্যপ্রদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১৪ জন মহিলা বন্দি, ভর্তি হাসপাতালে
করোনাভাইরাস (Photo Credits: Pixabay)

শাহদল, ১২ আগস্ট: মারণ রোগ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে গেলে লোকজনের সংস্পর্শে থাকা চলবে না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। সেজন্য বিধিনিষেধের বিরাম নেই। পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের জেলবন্দিদের মধ্যেও দূরত্ব বাড়ানোর চেষ্টা চলছে। সংক্রমণ ঠেকাতে বন্দি ভর্তি জেল ফাঁকা করার কাজও শুরু হয়েছে। তবে এভাবেও শেষরক্ষা হল না। ১৪ জন মহিলা বন্দির শরীরে মিলল মারণ ভাইরাসের জীবাণু। করোনাভাইরাস পজিটিভ মহিলা বন্দিরা সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) শাহদল জেলে স্থানান্তরিত হয়েছে। তার পরে পরেই ওই বন্দিদের লালারসের পরীক্ষা হয়। আজ রিপোর্ট এলে দেখা যায় নতুন আসা ১৪ জন মহিলা বন্দিই কোভিড-১৯ আক্রান্ত। সংক্রামিতদের মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাহদল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আরও পড়ুন-Bengaluru Violence: রণক্ষেত্র বেঙ্গালুরুতে মুসলিম যুবকদের সম্প্রীতির নজির, রাতভর মানব বন্ধনীতে সুরক্ষিত রইল মন্দির(দেখুন ভিডিও)

বুধবার শাহদল জেলার জেল সুপার জিকে নেটি জানান, আক্রান্তরা নতুন এসেছে এই জেলে। স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর তাদের কোভিড টেস্ট করানো হয়। সেই রিপোর্টেই দেখা গেল প্রত্যেকে করোনাভাইরাস পজিটিভ। আক্রান্তদের মধ্যে ১৩ জন বিচারাধীন বন্দি, আর একজন সাজাপ্রাপ্ত বন্দি। এইবন্দিরা প্রত্যেকেই বৈধান জেলে ছিল। সেখানকার মহিলা সেলে বন্দির সংখ্যা অনেক। রীতিমতো গাদাগাদি ভিড়। এদিকে দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ বাবে ছড়িয়েছে। এই পর্যায়ে বিপত্তি এড়াতে গেলে ফাঁকা ফাঁকা থাকাটাই শ্রেয়। সেকারণেই ১৪ জন মহিলা বন্দিকে বৈধান জেল থেকে শাহদলে স্থানান্তর করা হয় গত ৯ আগস্ট। করোনা আক্রান্ত বন্দিদের একজনের সঙ্গেই থাকে তার ১৮ মাসের শিশু সন্তান। মায়ের কোভিড ধরা পড়ার পর ওই শিশুর লালারসের নমুনা টেস্টের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে সেই রিপোর্ট এখনও আসেনি। জেল সুপার বলেন, শাহদল জেলে সবমিলিয়ে বর্তমানে মোট ২৫ জন মহিলা বন্দি রয়েছে। এদের কারোরই কোনওরকম করোনাভাইরাস জনিত উপসর্গ ছিল না।